• ঢাকা
  • বুধবার, ২৯শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ই মে, ২০২১ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
ভাঙ্গায় নদীর মাটি ভাগাভাগি নিয়ে সংঘর্ষের মামলায় নিরাপত্তাহীনতায় ২০ হিন্দু পরিবার

ছবিতে শনিবার বিকালে সিংগাপুর প্রবাসী হেলাল উদ্দিন ও কুমার নদীর খননের দৃশ্য)

মোঃ রমজান সিকদার, ভাঙ্গা(ফরিদপুর)প্রতিনিধি-০৪/০৫/২০২১

ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার চুমুরদী ইউনিয়নের মধ্যে দিয়ে বয়ে যাওয়া কুমার নদী খননের মাটি ভাগাভাগি নিয়ে গ্রামবাসির মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে উভয় পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হলে ভাঙ্গা থানায় মামলা হয়।

মামলার পর আসামী পক্ষ হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর দোষ চাপিয়ে তাদেরকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি – ধামকি সহ শারীরিক নিযার্তনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রতিটি বাড়ীর লোকজনের নিরাপত্তা সহ অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানিয়েছে ভুক্তোভুগিরা।

বিষয়টি নিয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা থানার উপ-পরিদর্শক তাহসিনুর রহমান বলেন, ঐ এলাকার আইন-শৃঙ্খলা এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। আসামীদের ধরতে পুলিশ মাঠে কাজ করছে। ঘটনার পর হতেই বিষয়টি নিয়ে পুলিশ সব সময় সজাগ রয়েছে।

জানা গেছে, চুমুরদী ইউনিয়নের ঋষি পাড়ার মাঠে কুমার নদী খননের শত শত ট্রাক মাটি রাখা হয়। খননকারি ঠিকাদার উক্ত মাটি গ্রামবাসির মাঝে ফ্রি হিসাবে বিতরন করেন। সেই হিসাবে গ্রামবাসি নিয়মিতভাবে মাটি যার যার বাড়ীতে নিতে ছিল। বিষয়টি নিয়ে এলাকার রফিকুল ইসলাম দুয়েম ও উক্ত ওয়ার্ডের মেম্বার গিয়াস সেকের মধ্যে ঝগড়ার সৃষ্টি হয়। গিয়াস মেম্বারের প্রতি হিন্দু সম্প্রদায় যোগ দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রফিকুল ইসলাম দুয়েমের লোকজন শনিবার বিকালে সিংগাপুর প্রবাসী হেলাল উদ্দিন ও তার শিশু পুত্র ইয়ামিম(৮)কে এলোপাথাড়ী কুপিয়ে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে বিষয়টি নিয়ে ওহিদ মিয়া বাদী হয়ে ভাঙ্গা থানায় রফিকুল ইসলাম দুয়েম সহ ১৮ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করে। মামলার পর আসামীরা পলাতক থাকলেও তাদের সমমনারা উক্ত এলাকার হিন্দু সম্প্রদায়ের উপরে চরম নির্যাতন শুরু করে।

গৃহবধু কনিকা দাস জানায়, ঘটনার পর থেকেই আমরা কেহ বাড়ীর বাইরে যেতে পারছিনা। নদীতে গেলে রফিকুল ইসলাম দুয়েমের লোকজন আমাদের বিভিন্ন ভাবে খারাপ ভাষা প্রয়োগ করে।

বৃদ্ধা লক্ষা রানী দাস বলেন, আমরা দীর্ঘদিন যাবৎ ওর কাছে জিম্মি হয়ে আছি। ওর বিরুদ্ধে থানায় আরো অভিযোগ রয়েছে। তা সত্ত্বেও সে বীরদর্পে ঘুরে বেড়ায়। আমাদের নিরাপত্তার জন্য যথাযথ কতৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করছি।

মালোশিয়া প্রবাসি ফয়সাল মিয়া জানায়, ইতিপুর্বে এই দুয়েম আমার বাড়ীতে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা করেছে। আমি সেসময় ভাঙ্গা থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেছি। এখন কুমার নদী খননের মাটি দুয়েম ও তার সমমনা ৮/১০জন বিক্রির পায়তারা করতেছিল। মেম্বার সহ গ্রামবাসি বাধা দেওয়ায় সে বেপরোয়া হয়ে ওঠে। এলাকার শান্তি বজায় রাখতে দ্রুত ভাবে আসামীদের গ্রেফতার দাবি করছি।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

মে ২০২১
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« এপ্রিল  
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১