• ঢাকা
  • বুধবার, ২৯শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ই মে, ২০২১ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
শাশুড়ির জানাযায় আসতে গিয়ে শিশুসহ নিজেই লাশ হয়ে ফিরলেন আরজু সরদার

বোয়ালমারী -আলফাডাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি : সোমবার ভোরে মাদারীপুরের শিবচরে স্পিডবোট ডুবিতে ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার শেখর ইউনিয়নের পচা মাগুরা গ্রামের আরজু সরদার (৫২) ও তার ছেলে ইয়ামিন (২) লাশ হয়ে ফিরলেন নিজবাড়ি। তাদের জানাযা আজ সোমবার রাত ১০টায় হওয়ার কথা রয়েছে।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার টগরবন্দ ইউনিয়নের চরডাঙ্গা গ্রামের উদ্দ্যেশ্য শ্বাশুড়ির মৃত্যু খবর পেয়ে তার জানাযায় অংশ নিতে ঢাকা থেকে স্ত্রী আদরী বেগম (৪০), দুই বছরের ছেলে ইয়ামিনকে সাথে নিয়ে রওয়ানা দিয়েছিল সে। কিন্তু বাড়ি পৌছনোর আগেই চলে গেলেন পরপারে। ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান তার স্ত্রী আদরী বেগম। আদরী বেগম স্বামী সন্তানের লাশ নিয়ে বিকেলে ফিরেন আলফাডাঙ্গার চরডাঙ্গা পিতার বাড়িতে। সোমবার বিকেলে আরজুর শ্বাশুড়ির নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর  বাপবেটার লাশ নেওয়া হয় বোয়ালমারী উপজেলার পচামাগুরায় আরজুর নিজ বাড়িতে। বাবা ছেলের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে আসে ওই এলাকায়।স্বজনদের আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠেছে এলাকার পরিবেশ।
শেখর ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য মাগুরা গ্রামের হানিফ শেখ বলেন, আরজু ঢাকায় ছোটখাটো ব্যবসা  করতো। স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ঢাকাতেই থাকতো। শ্বাশুড়ির মৃত্যু সংবাদ পেয়ে শ্বশুর বাড়ি আসছিলেন। আরজু সরদার ও আদরী বেগমের একই সন্তান ছিল ইয়ামিন।

সোমবার রাত ৯টায় শেখর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ইস্রাফিল মোল্যা জানান, এ ঘটনা একটি হৃদয় বিদারক ঘটনা। আরজু সরদার আমার ইউনিয়নের বাসিন্দা। সে দুই বিয়ে করলেও প্রথম স্ত্রীর ঘরে একটি মেয়ে ছিলো সেও আগেই মারা গেছে। দ্বিতীয় স্ত্রী আদুরী বেগমের ঘরে মো. ইয়ামিন সরদার নামে একটি মাত্র ছেলে সন্তান ছিলো। তার সংসারে আর দ্বিতীয় স্ত্রী আদুরী ছাড়া আর কেউ রইলো না। আরজু সরদার ও ছেলে ইয়ামিনের লাশ বাড়িতে আনা হয়েছে। রাত ১০টায় জানাযা শেষে স্থানীয় কবরস্থানে দাফন করা হবে।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

মে ২০২১
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« এপ্রিল  
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১