• ঢাকা
  • রবিবার, ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে নভেম্বর, ২০২০ ইং
গৃহহীনের দ্বারে জেলা প্রশাসক পাঠালেন প্রধানমন্ত্রীর ঢেউটিন

জেলা প্রশাসক অতুল সরকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে অসহায় বৃদ্ধা মমতাজ ওরফে মনোয়ারাকে ২ (দুই) বান্ডিল ঢেউটিন, নগদ ৬ (ছয়) হাজার টাকা,  চাল ডাল তেলসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি প্রদান করেন।

অস্থির সময়ের গভীর রাতে

গৃহহীনের দ্বারে জেলা প্রশাসক পাঠালেন প্রধানমন্ত্রীর ঢেউটিন

বৈশ্বিক দুর্যোগ করোনা ভাইরাস যখন সারা বিশ্বকে অস্থির করে তুলেছে, বাংলাদেশও তখন এর বাইরে নয়। দেশের সমগ্র অঞ্চলের সাথে ফরিদপুর জেলা  প্রশাসন যখন ব্যতিব্যস্ত জনসচেতনতা তৈরী, ত্রান সামগ্রী সুবিন্যস্তভাবে বিতরণ, অসুস্থ্যদের সঠিক চিকিৎসার জন্য ডাক্তারদের হাসপাতালে উপিস্থিতি নিশ্চিতকরণে; সেই সময়ে ফরিদপুর জেলা প্রশাসক জনাব অতুল সরকারের ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে এল এক ক্ষুদে বার্তা; বয়োবৃদ্ধ অসহায় মমতাজ ওরফে মনোয়ারা বেগমের মাথা গোজার শেষ ঠাই টুকু নিঃশেষের খবর। কাল বিলম্ব না করে তাৎক্ষনিক ক্ষুদে বার্তায় সাড়া দিয়ে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক জনাব অতুল সরকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রদত্ত ঢেউটিন আর ত্রান সামগ্রী পাঠালেন বৃদ্ধার জন্য।

জেলা সদরের গেরদা ইউনিয়নের একটি গ্রাম বাখুন্ডা পূর্বপাড়া। এ গ্রামেরই অসহায় এক বৃদ্ধা মনোয়ারা বেগম। বয়স ৬৫ পার করেছেন বেশ কমাস আগে। পরিবারের কর্তা সোহরাব শেখ ধরাধাম ত্যাগ করেছেন ৩ বছরের বেশি সময় পার হয়েছে। ৩ ছেলে মেয়ে নিয়ে ৫ জনের এক পরিবার সামলান বড় ছেলে রিক্সাচালক মানোয়ার আর ৫ ছেলে মেয়ে নিয়ে ৭ জনের পরিবার চালান ছোট ছেলে নির্মান শ্রমিক শামীম। এরই মাঝে কোন রকম দিনাতিপাত করছিলেন অসহায় বৃদ্ধা মমতাজ ওরফে মনোয়ারা বেগম।

গতানুগতিকভাবে বৃহস্পতিবার দিনটিও পার করেছিলেন পরিবারের সদস্যরা। কিন্তু বিধিবাম, গভীর রাতে কোথা থেকে কিভাবে আগুন লেগে যায় বৃদ্ধা মমতাজ ওরফে মনোয়ারা বেগমের ঘরে। নিমিষেই শেষ হয়ে যায় তার মাথা গোজার শেষ ঠাইটুকু। পড়ে থাকে শুধু সর্বনাশা আগুনে পোড়া ঘরের ছাই আর ভিটা। গৃহহীন হয়ে পড়ের অসহায় এই বৃদ্ধা। শুক্রবার সারাটা দিন মনোকষ্টে কাটলেও মৌখিক শান্তনা ছাড়া কেউ আর কিছু দেয়নি এই বৃদ্ধাকে।

একই গ্রামের বাসিন্দা সুমন আহমেদ; স্থানীয় একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র। ফরিদপুর জেলা প্রশাসক জনাব অতুল সরকার এর ব্যক্তিগত ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে আগুনে ঘর পুড়ে যাওয়ার ঘটনাটি সাহস করে শুক্রবার রাত ০৮.৫৮ টায় প্রেরণ করে সহায়তা কামনা করেন। প্রতিবেদককে সুমন আহমেদ বলেন, আমি জেলা প্রশাসক স্যারকে ম্যাসেজ দেওয়ার মাত্র ৪ মিনিট পরে ০৯.০২ মিনিটে তিনি আমাকে উত্তর দিয়ে সহায়তার আশ্বাস প্রদান করেন। স্যার জানান মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে মানবিক সহায়তা এবং টিন দিয়ে ঘর মেরামত করে দেয়া হবে।

একেতো গ্রামাঞ্চল, তারপরে আবার রাত। আর সেই গভীর রাতেই জেলা প্রশাসক অতুল সরকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে অসহায় বৃদ্ধা মমতাজ ওরফে মনোয়ারাকে ২ (দুই) বান্ডিল ঢেউটিন, নগদ ৬ (ছয়) হাজার টাকা,  চাল ডাল তেলসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি প্রদান করা হয়।

জেলা প্রশাসক মহোদয়ের তাৎক্ষনিক এই সেবা প্রদানে আন্তরিকভাবে খুশি হয়েছে মমতাজ ওরফে মনোয়ারা বেগম ও তার পরিবার। আর সহায়তা প্রদানের এ ধারা অব্যাহত রাখার অনুরোধ করেছে সচেতন ফরিদপুরবাসী।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

নভেম্বর ২০২০
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« অক্টোবর  
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।