• ঢাকা
  • শনিবার, ২৬শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১০ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
ভাঙ্গার দুর্গম গ্রামে গিয়ে পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের জমি অধিগ্রহণের চেক বিতরণ

হারুন আনসারী রুদ্র, ফরিদপুর :-

ফরিদপুরে পদ্মা সেতু রেল সংযোগ (১ম ও ২য় পযার্য়) প্রকল্পের জন্য অধিগ্রহণকৃত জমির মালিকদের মাঝে ক্ষতিপূরণের ২ কোটি ১২ লাখ ৪০ হাজার ৭০৯ টাকার চেক বিতরণ করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলার ভাঙ্গা উপজেলার ভাঙ্গা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের হলরুমে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ওই প্রকল্পের জন্য অধিগ্রহণকৃত জমির ৮৫ জন জমি মালিকদের মাঝে এসব চেক বিতরণ করা হয়।

এসময় সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ আল-আমিন ও ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকতার্ তিথি মিত্র সহ উপজেলা পযার্য়ের সংশ্লিষ্ট দফতরের কর্মকতার্গণ উপস্থিত ছিলেন। এসময় সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ আল আমীন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ্য হচ্ছে ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত একটি বাংলাদেশ গড়া। সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখেই আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

ক্ষতিপূরণের এই চেক বিতরণের জন্য বৃহস্পতিবার বিকেলে ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকতার্ তিখি মিত্রের নেতৃত্বে সরকারী কর্মকতার্ ও কর্মচারীরা ছুটে যান ভাঙ্গার হোগলাডাঙ্গি ও হরিরহাট গ্রামে। দুর্গম গ্রামের ইটমাটির রাস্তা পেরিয়ে তারা ক্ষতিগ্রস্তদের হাতে তুলে দেন এসব ক্ষতিপূরণের চেক। ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকতার্ তিথি মিত্র বলেন, জেলা প্রশাসক অতুল সরকারের নির্দেশনায় আমরা তাই সেবা প্রদানের জন্য জনগণের দোরগোড়ায় পৌছে যাচ্ছি।

জানা গেছে, পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের ১ম ও ২য় পযার্য়ে সবমিলিয়ে ফরিদপুরের ভাঙ্গা, নগরকান্দা ও সালথা উপজেলার প্রায় ৩শ’ একর জমি অধিগ্রহণ করা হয়। এর আগে এসব জমির মালিকদের ক্ষতিপুরণ বাবদ ১ম পযার্য়ে ২৭০ কোটি টাকা, ২য় পযার্য়ে ১৮৬ কোটি টাকা এবং তৃতিয় পযার্য়ে ৩শ’ জনের মাঝে ১২ কোটি ৩৪ লাখ ৫৮০ টাকার চেক বিতরণ করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার ওই প্রকল্পের আরো ৮৫ জনের মাঝে ২ কোটি ১২ লাখ ৪০ হাজার ৭০৯ টাকার এই ক্ষতিপুরণ প্রদান করা হলো।

জমি অধিগ্রহণের এসব চেক বিতরণে অযথা দুভোর্গ লাঘবের উদ্দেশে এখন থেকে প্রতিমাসে নিয়মিতভাবে সংশ্লিষ্ট উপজেলা হতে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে চেক বিতরণ করা হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানান।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

ডিসেম্বর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« নভেম্বর  
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।