• ঢাকা
  • সোমবার, ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জুন, ২০২১ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
ট্রাম্প করোনা আক্রান্ত হওয়ায় পাল্লা ভারী হচ্ছে বাইডেনের

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নতুন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেনের পক্ষে সমর্থন কিছুটা বেড়েছে বলে এক জনমত জরিপে ইঙ্গিত মিলেছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও জরিপকারী সংস্থা ইপসসের সর্বশেষ জরিপে বাইডেনকে ট্রাম্পের তুলনায় ১০ পয়েন্ট এগিয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। গতকাল রবিবার ওই জরিপের ফল প্রকাশ হয়।  ২ ও ৩ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রের এক হাজার ৫ জন প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিকের ওপর পরিচালিত এ জরিপে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর ট্রাম্পের ঘাঁটি অঞ্চল হিসেবে পরিচিত এলাকায় বাইডেনের সমর্থনের কোনো উত্থান-পতন আছে কি না, সে সম্বন্ধে কোনো ইঙ্গিত পাওয়া যায়নি।

তবে অংশগ্রহণকারীদের প্রায় দুই-তৃতীয়াংশেরই ভাষ্য, ট্রাম্প যদি প্রাণঘাতী এ ভাইরাসকে গুরুত্ব সহকারে নিয়ে সাবধানতা অবলম্বন করতেন, তাহলে সংক্রমণ এড়াতে পারতেন বলেই ধারণা তাদের।

বিশ্বের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রেই করোনাভাইরাস সবচেয়ে বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নিলেও ট্রাম্প ধারাবাহিকভাবে মহামারীর ভয়াবহতাকে অস্বীকার করে আসছিলেন। মহামারী নিজে নিজেই শেষ হয়ে যাবে বলেও মন্তব্য করেছিলেন তিনি। গত সপ্তাহে তিনি বাইডেনের মাস্ক পরা নিয়ে টিটকারিও করেছিলেন।

জরিপে অংশগ্রহণকারী ৫১ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক বাইডেনের প্রতি তাদের সমর্থন ব্যক্ত করেছেন। অন্যদিকে ৪১ শতাংশ বলেছেন, তারা ট্রাম্পকেই ভোট দেবেন। ৪ শতাংশ তৃতীয় কোনো দল বেছে নেবেন বলে জানিয়েছেন। আর ৪ শতাংশ কোন প্রার্থীকে ভোট দেবেন তা এখনো ঠিক করে উঠতে পারেননি।

রয়টার্স বলেছে, গত কয়েক সপ্তাহের জনমত জরিপগুলোতে বাইডেনকে ট্রাম্পের চেয়ে ৮ বা ৯ পয়েন্ট এগিয়ে থাকতে দেখা গিয়েছিল।

সাম্প্রতিক সময়ে এবারই ডেমোক্র্যাট প্রার্থী তার ব্যবধান বাড়িয়ে ১০ পয়েন্ট করলেন।
নির্বাচনের এক মাস আগে হওয়া জরিপে রিপাবলিকান প্রার্থীর সঙ্গে ব্যবধান দুই অঙ্কের ঘরে নিয়ে এলেও এখনই স্বস্তিতে থাকতে পারছে না ডেমোক্র্যাট শিবির।

‘ব্যাটলগ্রাউন্ড’ খ্যাত রাজ্যগুলোতে ট্রাম্প-বাইডেনের সমর্থন প্রায় সমান সমান হওয়ায় ৩ নভেম্বরের নির্বাচনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে বলেই অনুমান পর্যবেক্ষকদের।
ট্রাম্পের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর মার্কিনিদের মধ্যে কভিড-১৯ নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা আরও বেড়েছে বলেও রোববার প্রকাশিত এ জরিপে দেখা যাচ্ছে।

জরিপে অংশ নেওয়া ৬৫ শতাংশ মানুষই মনে করেন, যদি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প করোনাভাইরাসকে আরও গুরুত্ব সহকারে নিতেন, তাহলে হয়তো তিনি আক্রান্ত হতেন না।

নিবন্ধিত ডেমোক্র্যাটদের প্রতি ১০ জনের মধ্যে ৯ জন এবং নিবন্ধিত রিপাবলিকানদের মধ্যে প্রতি ১০ জনের মধ্যে ৫ জনই এ অবস্থানের প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করেছেন।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে ট্রাম্প সত্য বলেছেন বলে মনে করছেন জরিপে অংশ নেওয়া ৩৪ শতাংশ মানুষ। ৫৫ শতাংশ মনে করছেন এর উল্টোটা। আর ১১ শতাংশ জানিয়েছেন, করোনাভাইরাস নিয়ে ট্রাম্প সত্য নাকি মিথ্যা বলেছেন তা নিশ্চিত নন তারা।

জরিপে অংশ নেওয়া ৫৭ শতাংশই করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ট্রাম্পের নেওয়া কর্মকাণ্ডে অসন্তুষ্ট।

মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণা কাটছাঁট করা উচিত বলেও মনে করেন জরিপে অংশ নেওয়া সংখ্যাগরিষ্ঠ ব্যক্তি।

রয়টার্স ও ইপসসের এ জরিপে ৬৭ শতাংশ মার্কিনি প্রার্থীর উপস্থিতিতে প্রচারণা বন্ধের পক্ষে তাদের অবস্থান জানিয়েছেন। ৫৯ শতাংশ বলেছেন, ট্রাম্প সুস্থ হয়ে ওঠার আগ পর্যন্ত তার সঙ্গে বাইডেনের বিতর্ক স্থগিত থাকা উচিত।

ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকান পার্টির দুই প্রার্থীর মধ্যে আগামী ১৫ অক্টোবর আরেকটি মুখোমুখি বিতর্ক হওয়ার কথা। দুই ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রার্থী কমলা হ্যারিস ও মাইক পেন্সের মধ্যে মুখোমুখি বিতর্ক চলতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবার হওয়ার কথা রয়েছে।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

জুন ২০২১
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« মে  
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০