• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১১ই আগস্ট, ২০২২ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
ফরিদপুরে প্রায় ১০ মন জাটকা আটক : মাছ ব্যবসায়ী মুজিবর দত্ত পলাতক

হায়দার আলী খান,ফরিদপুর  : জাতীয় সম্পদ জাটকা ইলিশ রক্ষা করার জন্য বাংলাদেশ সরকার বিভিন্ন সরকারি প্রথা চালু করলেও কিছু অসাধু ব্যবসায়ীর কারনে এই মাছ দিন দিন বিলীন হয়ে যাচ্ছে। বিভিন্ন সময় প্রশাসনের পক্ষ থেকে জাটকা মাছ রক্ষার্তে চলে নানা অভিযান। প্রতিবছর অসংখ্য জেলেকে জেল জরিমানা করা হয়ে থাকে।

কিন্তু তারপরেও এই অসাধু ব্যবসায়ীগণ নিজেদের ব্যাক্তি স্বার্থ হাসিলের জন্য শত শত মন জাটকা নিধন করে চলেছে। সম্প্রতি সরকারের পক্ষ থেকে জাটকা মাছ ধরার নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ফরিদপুরে ঐতিহ্যবাহী হাজি শরিয়াতুল্লাহ বাজার এর মাছ ব্যবসায়ী মজিবর দত্ত এর ঘরে ৩টি ড্রামে থাকা প্রায় ৩ শত কেজি জাটকা জব্দ করে বিজ্ঞ নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট এ্যাসিল্যান্ড আমিনুল ইসলাম। ৬ এপ্রিল মোবাইলকোর্ট পরিচালনা করে মাছ ব্যবসায়ী মজিবর দত্ত এর ঘর থেকে এ জাটকা উদ্ধার করা হয়।

এ ছাড়াও গত ৫ই এপ্রিল শহরের রঘুনন্দুনপুর বাজারে অভিযান পরিচালনাকালে ৭টি ড্রামে থাকা প্রায় ৭০০ কেজি জাটকা জব্দ করে এ্যাসিলেন্ড আমিনুল ইসলাম।

এ বিষয়ে হাজী শরিয়াতুল্লাহ বাজার এর একাধীক মাছ ব্যবসায়ীর সাথে কথা বলে জানা যায়, মুুজিবর দত্ত দীর্ঘ দিন ধরে অসৎ পথে ব্যবসা পরিচালানা করে আসছে। বর্তমানে জাটকা ধরা সম্পুর্ন বেআইনি। কিন্তু এই সরকারি বিধি অমান্য করে মাছ ব্যবসায়ী মুজিবর দত্ত ৩টি ড্রামে করে প্রায় ৩ মন জাটকা বিক্রির উদ্দেশ্যে নিয়ে আসে। পরে প্রশাসনের পক্ষ থেকে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে উক্ত জব্দকৃত জাটকা মাদ্রাসার এতিমদের মাঝে বন্টন করে দেয়।

উল্লেখিত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করলেন হাজী শরিয়াতুল্লাহ বাজারের সাধারন সম্পাদক নুরুল ইসলাম মোল্লাসহ প্রায় অর্ধশত ব্যবসায়ী।

এই মাছ জব্দর বিষয়ে সদর এ্যাসিল্যান্ড মোহাম্মদ আল আমিন এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, দুই দফায় প্রায় ১ হাজার কেজি জাটকা ইলিশ জব্দ করা হয়, স্পটে কাউকে পাওয়া যায়নি। জব্দকৃত মাছ মাদ্রাসায় এতিমদের মাঝে বন্টন করা হয়েছে। তবে অভিযুক্তের বিষয়ে বাজারের পক্ষ হতে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

আগষ্ট ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« জুলাই  
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।