• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৭ই মে, ২০২২ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
চরভদ্রাসন উপজেলা নির্বাচনে পোস্টার ছেঁড়ার অভিযোগ নৌকা প্রার্থীর বিরুদ্ধে

চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ১০ অক্টোবর। এ নির্বাচনে মোট সাতজন প্রার্থী অংশ নিচ্ছেন। তবে এরইমধ্যে দু’জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে সরে দাড়িয়েছেন। এ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী একাধিক প্রার্থী নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও সমর্থকেরা তাদের পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা ও বিভিন্ন এলাকায় প্রবেশে বাধা দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন।

গত ২৩ মার্চ এ নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা ছিল। তবে কোভিড-১৯ এর কারণে সেসময় নির্বাচন স্থগিত করা হয়। সর্বশেষ নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন মুশার মৃত্যুতে পদটি শুন্য হয়।

জানা গেছে, নৌকা প্রতীকে প্রার্থী হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. কাউছার। তবে সম্প্রতি তিনি স্থানীয় আওয়ামী লীগের অভিভাবক হিসেবে পরিচিত কাজী জাফরুল্লাহর প্রতি অনাস্থা জানিয়ে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরীর সাথে যোগ দেন। এরপর তাকে দল থেকে বহিষ্কারের জন্য সুপারিশ করেন স্থানীয় নেতারা।

এ নির্বাচনের অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঘোড়া প্রতীকের মো. ওবায়দুল বারী দিপু খান। জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে লিখিত অভিযোগে তিনি বলেছেন, তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মো. কাউছার কর্মী বাহিনী দিয়ে ঘোড়া প্রতিকের পোস্টার ছিঁড়ে তার উপরে নৌকার পোস্টার লাগাচ্ছেন। নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ভোট কেটে নিবে বলে বলে বেড়াচ্ছেন।

তিনি উপজেলার চরভদ্রাসন পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, হাজীডাঙ্গি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাথাভাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, জুনিয়র মাদ্রাসা সরকারি বিদ্যালয় ও গাজীরটেকের চর অযোধ্যা উচ্চ বিদ্যালয় একারণে ঝুঁকিপূর্ণ বলে জানিয়েছেন।

ফয়সাল হাসান শাওন নামে দোয়াত কলম প্রতিকের অপর প্রার্থী একইভাবে অভিযোগ করে বলেন, আমাকে তারা চরভদ্রাসন সদরে পোস্টার লাগাতে দিচ্ছে না। এমনকি সেখানে প্রচারণায়ও যেতে দিচ্ছেনা।

মো. খবিরুউদ্দিন শেখ (মোটরসাইকেল) বলেন, আমার যতো পোস্টার ছিল চরভদ্রাসন সদরে সব পোস্টার ছিঁড়ে ফেলে নৌকার পোস্টার লাগানো হয়েছে। ভোটারদের কেন্দ্রে না যেতে হুমকি দিয়ে বলছে যে তারা কেটে নিবে।
এসব অভিযোগ অস্বীকার করে নৌকার প্রার্থী মো. কাউছার বলেন, প্রতিপক্ষরা ভোটে হেরে যাবে একথা জানতে পেরে এসব ভিত্তিহীন অভিযোগ করছে। আর আওয়ামী লীগ থেকে তাকে বহিষ্কারের এখতিয়ার কেন্দ্রীয় কমিটি ছাড়া কারোর নেই বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এ ব্যাপারে জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেষ্ঠ্য নির্বাচন কর্মকর্তা নওয়াবুল ইসলাম বলেন, নির্বাচনে এখন পর্যন্ত সুষ্ঠু পরিবেশ রয়েছে। আমরা সার্বক্ষণিক নজরদারি করছি। যারা অভিযোগ করেছেন, সেবিষয়ে কোনো সত্যতা পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেবো।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, এ উপজেলায় সর্বশেষ তালিকা অনুযায়ী ৫৬ হাজার ৯৪৩ জন ভোটার রয়েছেন যাদের মধ্যে ২৮ হাজার ১৬ জন পুরুষ ও ২৮ হাজার ৯২৭ জন নারী। এরমধ্যে চরভদ্রাসন সদর ইউনিয়নে ২২ হাজার ৯৭৭ জন, গাজীরটেকে ১৯ হাজার ১৭৬ জন, চর হরিরামপুরে ১১ হাজার ১১৪ জন ও চর ঝাউকান্দায় ৩ হাজার ৬৭৬ জন ভোটার রয়েছেন। এবার ২২টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ হবে।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

মে ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« এপ্রিল  
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১