• ঢাকা
  • সোমবার, ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জুলাই, ২০২৪ ইং
ফরিদপুরে কবি-সাহিত্যিকদের মিলনমেলা

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি:

ফরিদপুরে কবি-সাহিত্যিকদের মিলনমেলার আয়োজন করা হয়েছে।

শনিবার (০৭ জানুয়ারি) বিকালে ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সাংবাদিক লিয়াকত হোসেন মিলনায়তনে এ মিলনমেলার আয়োজন করা হয়।

ফরিদপুর ও রাজবাড়ী জেলার সাহিত্য পরিষদ যৌথভাবে এ মিলনমেলার উদ্যোগ নেন। এতে ফরিদপুর-রাজবাড়ী জেলার কবি ও সাহিত্যিকরা অংশগ্রহণ করেন।

ফরিদপুর সাহিত্য পরিষদের সভাপতি শিক্ষাবিদ প্রফেসর আলতাফ হোসেনের সভাপতিত্বে আনন্দঘন বর্ণিল এ মিলনমেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক মো. কামরুল আহসান তালুকদার।

এছাড়া এসময় এ মিলনমেলায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, রাজবাড়ী জেলার সাহিত্য পরিষদের আহ্বায়ক খোকন মাহমুদ, ফরিদপুর সাহিত্য পরিষদের সম্পাদক সাংবাদিক মফিজ ইমাম মিলন, রাজবাড়ীর মীর মশাররফ হোসেন স্মৃতি সংসদের সভাপতি কবি সালাম তাছির, রাজবাড়ী সদর উপজেলার চেয়ারম্যান ও সাহিত্যিক এ্যাড. ইমদাদুল হক বিশ্বাস, কবি শান্তি ভূষণ দাস প্রমূখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে বিকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কবিতা পাঠ করেন ফরিদপুর ও রাজবাড়ী জেলার কবিরা। এসময় প্রেসক্লাব মিলনায়তন দুই জেলার কবি-সাহিত্যিকদের পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে। শীতের তীব্রতা উপেক্ষা করেও এসময় অন্যরকম পরিবেশে কবি-সাহিত্যিকরা তাদের নিজেদের মধ্যে ভাবের আদান-প্রদান করেন; আড্ডায় মেতে ওঠেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর কবিতা পাঠ পর্বে গোটা মিলনায়তন কবিতায় মন্ত্রমুগ্ধ করে রাখেন কবি আব্দুস সামাদ, ছড়াকার ও কথাসাহিত্যিক নুরু উদ্দিন, কবি ও লেখক আব্দুর রাজ্জাক রাজা, কবি আলীম আল রাজী, কবি শাহ মো. রশিদ আল কামাল, কবি শাহনাজ বেগম, কবি পারভীন হক, কবি খোকন মাহমুদ,সাংবাদিক সঞ্জীব দাসসহ দুই জেলার কবিরা।

শীতের বিকালের ঝিরঝির হিম বাতাস আর সন্ধ্যার মৃদু কুয়াশায় বিমূর্ত কবিতাগুলো কবিদের কণ্ঠে যেন মূর্ত হয়ে ওঠে। কবিতার সিগ্ধ কাঠির ছোঁয়ায় অন্যরকম আবেশে অভিভূত হন কবি, শ্রোতা ও সুধীবৃন্দ।

এর আগে একইদিন সকালে প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে “আমার সোনার বাংলা” শীর্ষক প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। সেখানে আবহমান বাংলার বিভিন্ন ছবি শোভা পায়।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

জুলাই ২০২৪
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« জুন    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।