• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৪ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho

সালথা'য় 'মানবিক সহায়তা কার্ডে'র মাধ্যমে দুস্থদের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরন

আমাগো চাইল কেও নিতে পারবো না, শুনেছি আমাগো জেলার বড় অফিসার ডিসি এই কামডা করছে”

মনির মোল্যা, সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি:

ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় মানবিক সহায়তা কার্ডে’র মাধ্যমে খাদ্য সহায়তা পেল ২৬’শ ৪০ টি দুস্থ পরিবার। শনিবার সকালে উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নে এ খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়েছে। এসময় বিভিন্ন ইউনিয়নে উপস্থিত হয়ে খাদ্য সামগ্রী বিতরন দেখ-ভাল করেন জেলা প্রশাসকের পক্ষে জেলা মৎস্য অফিসার মনিরুল ইসলাম, সালথা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মাদ হাসিব সরকার ও উপজেলা মৎস্য অফিসার সৈকত মল্লিক প্রমুখ।

রামকান্তুপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা রহিমা বেগম বাম কোলে একটি বস্তা ডান হাতে বেগুনী কালারের একটি কার্ড হাতে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে খুশিতে বাড়ি যাওয়ার সময় বাজারে তার সাথে কথা হলো। একটু এগিয়ে গিয়ে তার এই খুশির কারন জানতে চাইলে তিনি বলেন, “আগে কার্ড থাকলেও অনেক সময় চাইল পায় নাই। এখন আর এই কার্ডের কারনে নাকি তা আর সম্ভব না। এই কথা এহন আমি জানতে পাইরা গেছি। আর আমাগো চাইল কেও নিতে পারবো না। শুনেছি আমাগো জেলার বড় অফিসার ডিসি এই কামডা করছে”।

এই ইউনিয়ন পরিষদের সামনে রাস্তায় আরেক কার্ডধারী আলী মাতুব্বরের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, এহন আর আমাগো চাইল-ডাইল চুরি করতি পারবে নানে। রামকান্তুপুর ইউপি চেয়ারম্যান আশরাফ আলী লিঠু খাদ্য সামগ্রী বিতরন কালে ইউনিয়ন পরিষদে উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া গট্রি ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা রহিমা বেগম এই খাদ্য সহায়তা পাওয়ার পর এভাবেই তার প্রতিক্রিয়া জানালেন। এসময় তিনি এই মানবিক কার্ডের খাদ্য সহায়তায় তার নামভুক্তির জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতাও জানান।

এমনই সুন্দর মহতি উদ্যোগ গ্রহন করেছে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসন। তাদের ভাবনা চিন্তার ফসল এই মানবিক কার্ড এখন সারাদেশে রোল মডেল এ পরিনত হয়েছে। করোনা ভাইরাস বিপর্যয় কালিন সময়ে ফরিদপুর জেলা প্রশাসনের এই মডেল গ্রহন করে এরই মধ্যে অনেক জেলা প্রশাসন প্রধানমন্ত্রীর দেয়া মানবিক উপহার বিতরণ শুরু করেছেন হত দরিদ্রদের মাঝে।

বর্তমানে সারা বিশ্ব করোনা ভাইরাসের প্রভাবে প্রকম্পিত। বাংলাদেশও সাম্প্রতিককালে এর প্রভাব বেশ পরিলক্ষিত হচ্ছে। ভাইরাসটির প্রভাবে জীবন ও অর্থনীতি ঝিমিয়ে পড়ায় অনেক মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে।

এ বিশাল কর্মহীন মানুষকে মানবিক সহায়তার এক মহতী উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাঁর নির্দেশনায় মানুষের বাড়ি বাড়ি খাবার পৌঁছে দিতে নিরলস কাজ করেছে সারাদেশে জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ।

বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন, সালথা উপজেলা নির্বাহী মোহাম্মাদ হাসিব সরকার তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সংকটাপন্ন মানুষকে সহায়তা প্রদান একটা সময়োপযোগী সিস্টেমের ভেতরে নিয়ে আসার নিমিত্তে ফরিদপুররে সুযোগ্য জেলা প্রশাসক অতুল সরকার স্যারের মহতী ও সুচিন্তিত আধুনিক ধারনার এক অনবদ্য সৃষ্টি ‘মানবিক সহায়তা কার্ড’। এই কার্ডের মাধ্যমে শনিবার উপজেলার ২৬’শ ৪০টি উপর্জনহীন হয়ে পড়া পরিবারের মাঝে ১০ কেজি করে চাউল বিতরন করা হয়েছে।

৯ মে ২০২০

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

জানুয়ারি ২০২৩
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« ডিসেম্বর  
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।