• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৯শে নভেম্বর, ২০২২ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
চরভদ্রাসনে অসহায় পরিবারের জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগ

চরভদ্রাসন(ফরিদপুর) প্রতিনিধি:

ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা সদরে বিএস ডাঙ্গী গ্রামের মৃত উসমান গণি খানের ছেলে অসহায় আক্কাস আলী খান (৫০) এর ভিটেবাড়ীর সামনে ২৬ শতাংশ ফসলী জমি স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল জবর দখলের জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ ভুক্তভোগী পরিবারের। পার্শ্ববতী এম.কে. ডাঙ্গী গ্রামের প্রভাবশালী মৃত জালাল উদ্দিন খানের ছেলে কাউছার খান (৪৮) ও বিএস ডাঙ্গী গ্রামের মৃত সিরাজ উদ্দিন মোল্যার ছেলে ওবায়দুর রহমান মোল্যা (৬০) এর সাঙ্গপাঙ্গ মিলে গত শুক্রবার দিবাগত রাতে অসহায় পরিবারের ফসলী মাঠের মধ্যে মালিকানা উল্লেখ করে একটি সাইনবোর্ড পুতে রেখেছেন। উক্ত জমি অসহায় পরিবারের দীর্ঘকালের ক্রয়কৃত দখলীয় সম্পত্তি। সাইনবোর্ডে উল্লেখ রয়েছে, “এই জমির মালিক কাউছার খান, মোবাইল নং-০১৭২৯-৬৪৬০৫৬, জমির পরিমান-৮২ শতাংশ, খতিয়ান নং-১৫৩৯ নং, দাগ নং-৮১৫৪নং”।

শনিবার দুপুরে অন্যের জমিতে সাইনবোর্ড পুতার ব্যপারে দখলদার কাউছার খানকে মুঠোফোনে জিজ্ঞেস করলে সে এ প্রতিবেদককে জানায়, “ ভাই আপনি আমার সিনিয়র, আপনার সাথে স্বাক্ষাতে কথা বলবো”। আরেক প্রভাবশালী ওবায়দুর রহমান মোল্যা জানায়, “ আক্কাস খানের বাড়ীর পিছনে কাউছার খান মাত্র ১০ কাঠা জমি দাবী করেছে, সেই জমি তকে বুঝে দেয় নাই। তাই আক্কাসদের বাড়ীর সামনের জমিতে সাইনবোর্ড পুতেছে”।

ভুক্তভোগী গৃহকর্তা আক্কাস আলী খান জানায়, বাড়ীর সামনের ২৬ শতাংশ ফসলী জমিটুকু অসহায় পরিবারের শেষ সম্বল। তার মরহুম পিতা একই গ্রামের মৃত খলিলুর রহমান মোল্যার নিকট থেকে ১৯৭০ সালের ২৫ এপ্রিল ফরিদপুর সদর জয়েন্ট সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে ৪৯৭০ নং খোষকবলা দলিলমূলে ক্রয় করে বিগত ৫১ বছর ধরে ভোগ দখল করে চলেছেন। পিতার মৃত্যুর পর আক্কাস আলী খানের বড় ভাই বাবুল খান কিডনী জনিত জটিল রোগাক্রান্ত অবস্থায় দীর্ঘদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর মৃত্যু হয়েছে। বড় ভাইয়ের চিকিৎসা ব্যায় মেটাতে গিয়ে পরিবারটি নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। ভাইয়ের মৃত্যুর পর স্থানীয় প্রভাবশালী মহল আক্কাস আলী খানের স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি জবর দখলের জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ। প্রভাবশালীরা ইতিমধ্যে আক্কাস আলী খানের বসতবাড়ীর পিছনে ফসলী মাঠের জমি দাবী দখলের দাবী তুলে ব্যার্থ হওয়ার পর বাড়ীর সামনের জমিতে সাইনবোর্ড পুতেছে।

আক্কাস আলী খান আরও জানায়, মৃত ভাইয়ের চিকিৎসা কালিন সময়ে বাড়ীর সামনে ফসলী মাঠের ২৬ শতাংশ জমি প্রতিবেশী মানিক তালুকদার ওরফে মানিক তহশিলদারের কাছে বন্ধকী রেখে চিকিৎসা ব্যায় মেটানো হয়েছিল। সম্প্রতী প্রভাবশালীরা ওই জমি বন্ধক গ্রহিতার সাথে আতাত করে রাতের আধারে সাইনবোর্ড পুতে রেখেছে। প্রভাবশালীরা আক্কাস খানকে তার দখলীয় সব জমি ছেড়ে দিতে প্রতিনিয়ত হুমকী দিয়ে চলেছে বলেও সে জানায়। আর ওই জমি বন্ধক গ্রহিতা মানিক তহশিলদার জানায়, “ কাউছার খান দীর্ঘদিন ধরে তার স্বত্ত আছে বলে প্রচার  করেছে, কিন্ত আমি বার বার অনুরোধ করার পরও এ পর্যন্ত সে কোনো কাগজপত্র দেখাতে পারে নাই”।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

নভেম্বর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« অক্টোবর  
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।