• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
ময়মনসিংহে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও মাদকসহ মহানগর যুবলীগ সদস্য শাওন গ্রেফতার

ময়মনসিংহ নগরীর চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ও দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী ইয়াসিন আরাফাত শাওনকে বিপুল পরিমাণে অস্ত্র, অস্ত্র তৈরীর সরঞ্জাম ও মাদকসহ গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১৪। শাওন ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের সদস্য বলে জানা গেছে।

শনিবার (৯ মে) বিকেলে র‌্যাপিড এ্যাকশান ব্যাটেলিয়ান র‌্যাব-১৪ এর অধিনায়ক লে. ক. এফতেখার উদ্দিন সাংবাদিক সম্মেলন করে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এরআগ একইদিন ভোর রাতে নগরীর পুরোহিত পাড়া এলাকার নিজ বাসা থেকে শাওনসহ ৭ যুবককে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব সদস্যরা।

র‌্যাব-১৪ অধিনায়ক জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ময়মনসিংহ নগরীর চামড়াগুদাম পুরোহিতপাড়া এলাকায় শাওনের বাসায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় তার বাসা থেকে দুটি পিস্তল, একটি রিভলবার, তিনটি ম্যাগাজিন, দুটি এক নালা বন্ধুক, অস্ত্র তৈরী এবং রক্ষনাবেক্ষনের সরঞ্জমাদি, স্নাইপিং রাইফেলের টেলিস্কোপিং সাইট, ৭ টি রাম দা, ৪ টি ছোড়া, ৩’শ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট ও একটি চাপাতি উদ্ধার কর হয়।

তিনি আরও জানান, গ্রেপ্তার কৃতরা যুবকরা হলেন, নগরীর পুরহিত পাড়া এলাকার ইদ্রিস হোসেনের ছেলে ইয়াসিন আরাফাত শাওন(৩৬) ও মাসুদ পারভেজ(৩০), শেওড়া চামড়াগুদাম এলাকার মৃত ছাবু মিয়ার ছেলে রায়হান আহমেদ রাজীব(২৮), একই এলাকার মৃত জব্বার মিয়ার ছেলে মো. মানিক মিয়া(২৭), বাগানবাড়ি এলাকার আঃ গনির ছেলে হৃদয় আহমেদ রাজীব(১৮), চামড়াগুদাম এলাকার আলতাফ হোসেনের ছেলে মোঃ রাজীব(৩০), পুরোহিত পাড়া এলাকার মৃত মোখলেস আহম্মদের ছেলে বাপ্পি খান(৩৬)।

তিনি আরও জানান, গ্রেফতারকৃত আসামিরা জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেন, তারা এসব অস্ত্র মাদক চোরাচালান, ছিনতাই, ডাকাতি ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে ব্যবহার করতেন। তাদের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এর আগে তার বিরুদ্ধে কোতোয়ালি মডেল থানায় মাদক, চাঁদাবাজি, নারী ও শিশু নির্যাতন সহ প্রায় আটটি মামলা রয়েছে বলে সূত্র জানায়।

এদিকে দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী ইয়াসিন আরাফাত শাওনকে গ্রেফতার করার খবরে সাধারণ জনগণের মধ্যে ব্যাপক চাঞ্চল্যে সৃষ্টি হয়। দীর্ঘদিন ধরে নগরীতে নির্বিঘ্নে মাদক বাণিজ্য চালিয়ে গেলেও ধরাছোঁয়ার বাইরে ছিলো এই শাওন।

মাদক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সরকারের জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণার পর জেলায় ব্যাপক তোলপাড় চালায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তবে সে সময় ময়মনসিংহ মাদকের গডফাদার ইয়াসিন আরাফাত শাওন বাঁচতে গা ঢাকা দেয়। মাদক সন্ত্রাস ইয়াসিন আরাফাত শাওনের মাদক-বাণিজ্য ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড নিয়ে ময়মনসিংহ জনগণের মাঝে ব্যাপক সমালোচনা থাকলেও একটি প্রভাবশালী রাজনৈতিক মহলের ছত্র ছায়ায় ২০১৬ সালে ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের সদস্য পদ লাভ করে সে। রাজনৈতিক পরিচয় লাভ করে আরও দুর্ধর্ষ হয়ে ওঠে ইয়াসিন আরাফাত শাওন। নিরবে নির্বিঘ্নে চলে তার মাদক বাণিজ্য ও চাঁদাবাজি। ভুক্তভোগী জনগণ চাইলেও রাজনৈতিক ছত্র ছায়ার কারণে তার বিরুদ্ধে আইনি অভিযোগ দায়ের করতে ভীত ছিল বলে সূত্র জানা যায়।

 

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

ফেব্রুয়ারি ২০২৩
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« জানুয়ারি  
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।