• ঢাকা
  • সোমবার, ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জুলাই, ২০২৪ ইং
সালথায় সরকারি গাড়ির ড্রাইভারকে হাতুড়ী দিয়ে পেটালো দুস্কৃতকারীরা

সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি:

ফরিদপুরের সালথা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের সরকারি গাড়ির ড্রাইভার মো. শেখ মনিরুজ্জামানকে (৩৫) হাতুরী দিয়ে পিটিয়েছে দুস্কৃতকারীরা। পরে স্থানীয়রা তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার গট্টি ইউনিয়নের মাদরাসা গট্টি মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। আহত ড্রাইভার মনিরুজ্জমান গট্টি ইউনিয়নের বাগবাড়ি গট্টি গ্রামের শেখ আব্দুল কাদের মাস্টারের ছেলে।

শনিবার সকালে আহত মনিরুজ্জামান বলেন, আমি উপজেলা চেয়ারম্যান ওয়াদুদ মাতুব্বরের সরকারি গাড়ির ড্রাইভার হিসেবে চাকরী নেওয়ার পর থেকে আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ছিল গট্টি ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক ও ইউপি সদস্য নুরু মাতুব্বর ও তার সমর্থকরা। নুরু মাতুব্বর স্থানীয়ভাবে উপজেলা চেয়ারম্যানের প্রতিপক্ষ। উপজেলা চেয়ারম্যান কয়েকটি মামলায় জেলে থাকায় বর্তমানে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রূপা বেগমকে তার গাড়িতে নিয়ে চলাচল করি। শুক্রবার বিকালে রূপা বেগমকে তার বাসায় পৌছে দিয়ে গাড়িটি গ্রেজে রেখে বাড়িতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওয়না হই। এরই মধ্যে আমার স্ত্রী ফোন করে আমার ছেলের জন্য দুধ আর ওষুধ নিয়ে যেতে বলেন। পরে সন্ধ্যার দিকে আমি ঠেনঠেনিয়া বাজার থেকে দুধ আর ওষুধ নিয়ে বাড়ি যাওয়ার সময় মাদরাসা গট্টি মোড় থেকে কোনো কারণ ছাড়াই হঠাৎ আমার উপর হামলা করে নুরু মাতুব্বরের সমর্থক আসমত শেখ ও আকমত শেখসহ কয়েকজন। তারা আমাকে হাতুরী দিয়ে অন্তত ৫০টি আঘাত করে। এতে আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেলি। পরে স্থানীয়রা আমাকে উদ্ধার করে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসাপাতালে এনে ভর্তি করে। এখন আমি নড়াচড়া করতে পারছি না। আমার সারা শরীর ব্যাথা হয়ে আছে।

তবে ইউপি সদস্য নুরুল মাতুব্বর এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, গ্রাম্য দলাদলি নিয়ে আমার দলের পক্ষ থেকে বেশ কয়েকটি মামলা করা হয় উপজেলা চেয়ারম্যান ওয়াদুদের লোকজনের বিরুদ্ধে। বর্তমানে মামলাগুলো তুলে নিতে ওয়াদুদ মাতুব্বরের লোকজন আমাদের লোকজনের উপর নির্যাতন চালাচ্ছে। তারা আমাদের স্থানীয় বালিয়া বাজারে উঠতে দেয় না। শুক্রবার বিকালে আমার সমর্থক কাউছারকে বালিয়া বাজারে গেলে তাকে মারধর করে ওয়াদুদের লোকজন। ওই সময় উপজেলা চেয়ারম্যানের ড্রাইভার মনিরুজ্জামান ছিল। এ ঘটনার পর ড্রাইভার মনিরুজ্জামান মাদরাসা গট্টি মোড় আসলে কাউছারের ভাই-ব্রাদার তার উপর হামলা চালায়। তখন আমার ভাই মুনসুর মাতুব্বর ঠেকাতে গেলে তার শরীরেরও আঘাত লাগে।

হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ সাদিক বলেন, ড্রাইভার মনিরুজ্জামানের উপর হামলার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। মনিরুজ্জামানের বাবাকে বলেছি, যারা প্রকৃত হামলা করেছে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দিতে। মামলা হওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

১০ সেপ্টেম্বর ২০২২

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

জুলাই ২০২৪
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« জুন    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।