• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২রা ডিসেম্বর, ২০২২ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
মাদারীপুরে ভাসমান আধুনিক প্রযুক্তির উপর কৃষক প্রশিক্ষণ ও মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

ফরিদপুর সরেজমিন গবেষণা বিভাগ (সগবি), বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) এর উদ্যোগে ভাসমান বেডে সব্জি ও মসলা চাষ গবেষণা, সম্প্রসারণ ও জনপ্রিয় করণ প্রকল্প (বারি অংগ) এর অর্থায়নে ভাসমান আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার উপর কৃষক প্রশিক্ষণ ও মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৯ ডিসেম্বর বুধবার মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলার আমগ্রামে ভাসমান কৃষির আধুনিক প্রযুক্তির উপরে এ কৃষক প্রশিক্ষণ ও মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়। কৃষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানটি সকালে ও মাঠ দিবস অনুষ্ঠান বিকালে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ফরিদপুর সরেজমিন গবেষণা বিভাগ,(বারি) অঞ্চল প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. সেলিম আহম্মেদ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও প্রকল্প পরিচালক ড. মো. মোস্তাফিজুর রহমান তালুকদার। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল রহমতপুর আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্র(বারি) এর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. গোলাম কিবরিয়া ও ড. মো. আলিমুর রহমান। অারো উপস্থিত ছিলেন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো.মাহবুবুর রহমান, রাজৈর উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মো. ফরহাদুল মিরাজ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফরিদপুর সরেজমিন গবেষণা বিভাগ ( সগবি) এর বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এ.এফ.এম. রুহুল ক্দ্দুুস। তিনি তার বক্তব্যে বলেন বাংলাদেশের ‘‘ভাসমান কৃষি’’ পদ্ধতি বিশ্ব কৃষি ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ায় বহির্বিশ্বে প্রযুক্তিটির পরিচিতির পাশাপাশি দেশের পরিচিতিও বৃদ্ধি পাচ্ছে ফলশ্রয়তিতে বিএআরআই থেকে ভাসমান কৃষির উপযোগী জাত ও প্রযুক্তি কৃষি বিজ্ঞানী কর্তৃক উদ্ভাবন হচ্ছে। এবং প্রশিক্ষণ ও কৃষক সমাবেশের মাধ্যমে তা কৃষক পর্যায়ে সম্প্রসারণ প্রয়োজন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন প্রচলিত পদ্ধতিতে কৃষকরা সাধারণতঃ বর্ষাকালে ভাসমান বেডে সবজি ও মসলা ফসলের চারা (লাউ, মরিচ, বোম্বাই মরিচ, সীম, পেঁপে, করলা, শসা, মিষ্টি কুমড়া, বরবটি প্রভৃতি এবং সীমিত কয়েকটি সবজি (যেমন- লালশাক, পুঁইশাক, ঢেঁড়স, পানিকচু) এবং মসলা (যেমন- হলুদ) উৎপাদন করে। কিন্তু অনুন্নত জাতের ব্যবহার ও ভাসমান কৃষি ভিত্তিক আধুনিক প্রযুক্তির অভাবে প্রচলিত পদ্ধতিতে সবজি ও মসলা ফসলের কাঙ্খিত ফলন পাওয়া যায় না এবং উৎপাদিত চারাও মানসম্পন্ন হয় না।

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি)এর বিজ্ঞানীরা দীর্ঘদিন যাবত গবেষণা করে সবজি ও মসলা ফসলের বেশ কয়েকটি উচ্চ ফলনশীল ও আধুনিক জাত উদ্ভাবন করেছেন যা ‘‘ভাসমান কৃষি’’ পদ্ধতিতে চাষের জন্য প্রর্বতন করা যেতে পারে। এছাড়াও বিভিন্ন প্রযুক্তি যেমন প্রচলিত ভাসমান বেডের উন্নয়ন, ভাসমান বেডে উৎপাদিত ফসলের বহুমুখীকরণ, সবজি ও মসলা ফসলের মানসম্পন্ন চারা উৎপাদন, ফসল পদ্ধতি ও কৃষিতাত্তি¡ক ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন, গাছের পুষ্টি/সার ব্যবস্থাপনা, সমন্বিত সবজি ও মাছ চাষ, ভাসমান বেডে শাকসবজি ও মসলা ফসলের ক্ষতিকারক পোকামাকড় ও রোগ-বালাই সনাক্তকরন ও তাদের জৈব বালাই ব্যবস্থাপনা, ইদুরের সমন্বিত জৈবিক দমন ব্যবস্থাপনা প্রভৃতি উদ্ভাবন হয়েছে যা প্রশিক্ষণ এর মাধ্যমে কৃষক জানতে পারবে।

কৃষকদের বারি উদ্ভাবিত নতুন জাত ও প্রযুক্তি দ্বারা ভাসমান কৃষি আবাদের জন্য কৃষকদের অনুরোধ করেন। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন সংশ্লিষ্ট বৈজ্ঞানিক সহকারী, উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার কর্মী। প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে মোট ৩০ জন কৃষক ও কৃষাণী অংশগ্রহন করেন। কৃষক প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে কারিগরী পর্বে পাওয়ার পয়েন্ট এর মাধ্যমে উপস্থাপন করা হয়। ভাসমান কৃষির আধুনিক প্রযুক্তি যেমন নতুন নতুন ফসলের সংযোজন, কৃষিতান্ত্রিক ব্যবস্থাপনা যেমন বেড তৈরী, চারা তৈরী, সার, সেচ ও আন্তঃপরিচর্যা এবং ফসল সংগ্রহ প্রযুক্তি সম্পর্কে বক্তারা আলোচনা করেন। বক্তব্য প্রদান শেষে প্রশ্ন উত্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। বিকালে অনুষ্ঠিত মাঠ দিবসে ৮০ জন কৃষক ও কৃষানী অংশগ্রহন করেন এবং বারি উদ্ভাবিত ভাসমান কৃষির জন্য লাগসই প্রযুক্তির মাধ্যমে উৎপাদিত ফসল পরিদর্শণ করেন। তারা প্রচলিত পদ্ধতির মাধ্যমে ভাসমান কৃষিতে সব্জি আবাদের পরিবর্তে বারি উদ্ভাবিত প্রযুক্তিকে গ্রহন আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানে অতিথিগণ সবাইকে নতুন প্রযুক্তি গ্রহন করে ভাসমান কৃষিকে আরো এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

ডিসেম্বর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« নভেম্বর  
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।