• ঢাকা
  • সোমবার, ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জুলাই, ২০২৪ ইং
ভাঙ্গায় স্বর্ন ব্যবসায়ীর ৪০ ভরি স্বর্ন ছিনতাই !

পুলিশের এএসআই ও সোর্স আটক! অভিযানে স্বর্ন উদ্ধার।

ছবি প্রতিকী

মোঃ রমজান শিকদার, ভাঙ্গা(ফরিদপুর)প্রতিনিধি-৮/১৪/৭/২২
ফরিদপুরের ভাঙ্গা বাজারে এক স্বর্ন ব্যবসায়ী নিকট থেকে পুলিশ পরিচয়ে ৪০ ভরি স্বর্ন ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় বুধবার ভুক্তভোগী স্বর্ণ ব্যবসায়ী পাপ্পূ বিশ্বাস ভাঙ্গা থানায় থানার এএসআই বাবুল হোসেন ও তার সোর্স মেহেদী হাসান মৃদুল মুন্সীকে আসামি করে একটি মামলা আদায় করেন। ভাংগা থানার মামলা নং-০৯। তারিখ -১৩/৭/২২।
মামলার পর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম রেজা ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোলাম দস্তগীর আহমেদ বিকেলে অভিযূক্ত পুলিশের এএসআই বাবুল হোসেন ও তার সোর্স মেহেদী হাসান মৃদুল কে আটক করে। তাদেরকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে এএসআই বাবুল হোসেনের ভাড়া বাড়ি থেকে ছিনতাইকৃত স্বর্ণ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় পুলিশের এএসআই বাবুল হোসেন ও তার সোর্সকে জেল হাজতে প্রেরণ করছে পুলিশ।
স্বর্ন ব্যবসায়ী নিকট থেকে পুলিশ কর্মকর্তার স্বর্ণ ছিনতাইয়ের ঘটনায় ভাঙ্গায় টক অব দ্য টাউনে পরিনত হয়েছে।
মামলা সুত্রে জানা যায়, নড়াইল জেলার লোহাগড়া থানার কামঠানা গ্রামের অজিত বিশ্বাসের পুত্র পাপ্পু বিশ্বাসের যশোর সদর মার্কেটে পিসি চন্দ্র জুয়েলার্সের দোকান রয়েছে। সে গত ৯ জুলাই রাতে ভাঙ্গা বাজারের স্বর্নের ব্যবসায়ীর নিকট থেকে ১১টি স্বর্নের বার বা ১১০ ভরি স্বর্ন ক্রয় করে। রাত অনুমানিক ১টার সময়ে স্বর্ন পকেটে নিয়ে বাড়ি যাওয়া সময়ে তার পথ গতিরোধ করে ভাঙ্গা থানার এএস আই বাবুল হোসেন ও তার সোর্স মেহেদী হাসান মৃদুল। এ সময় ওই স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে পুলিশ পরিচয়ে তার স্বর্ণ অবৈধ বলে সব স্বর্ণ ছিনিয়ে নেয়। এ সময় স্বর্ণ ব্যবসায়ী নিজেকে লাইসেন্সধারী বৈধ স্বর্নের ব্যবসায়ী বলে পরিচয় দেয় এবং বৈধ ১১টি স্বর্নের বার আছে বলে স্বীকার করেন। পরে এএসআই বাবুল হোসেন ও স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে ৭টি বার ফেরত দিয়ে ৪টি বার সমান ৪০ ভরি স্বর্ন নিয়ে যায়। এবং তাকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে বলে দ্রুত এলাকা ত্যাগ করার নির্দেশ দেয়। স্বর্ণ ব্যবসায়ী সে সময় আতংকে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরবর্তীতে বিষয়টি তার আত্মীয় স্বজনদের নিকট পরামর্শ করে গত মঙ্গলবার রাতে ভাঙ্গা থানার ওসি নিকট বিস্তারিত জানায়। তখন ওসি এএসআই বাবুলকে জিঞ্জাসা করলে প্রথমে বিষয়টি সম্পুর্ন অস্বীকার করে। পরে এএস আই বাবুলের সোর্স মেহেদীকে মুখোমুখি জিজ্ঞেসা করলে তারা দুজনেই অকপটে সব স্বীকার করেন।
এব্যাপারে ভাঙ্গা থানার ওসি সেলিম রেজা সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এঘটনায় ভাঙ্গা থানায় মামলা হয়েছে। এএসআই বাবুল হোসেন ও তার সোর্স মেহেদী হাসানকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। ছিনতাইকৃত ৪টি স্বর্নের বার উদ্ধার করা হয়েছে ।
পরবর্তীতে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে অভিযুক্ত পুলিশের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

জুলাই ২০২৪
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« জুন    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।