• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১১ই আগস্ট, ২০২২ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
ফরিদপুরে মন্দির থেকে নীল পূজার শিবের প্রতীকী নিয়ে ফেলে দেয় দুর্বৃত্তরা

নিরঞ্জন মিত্র (নিরু) ( ফরিদপুর জেলা প্রতিনিধি):-ফরিদপুরে সদর উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নে রাতের অন্ধকারে একটি অস্থায়ী মন্দিরে ঢুকে নীল পূজার শিবের প্রতীকী দেল নিয়ে দূরে একটি জায়গায় খালের মধ্যে ফেলে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

১৩ এপ্রিল মঙ্গলবার আনুমানিক রাত ১০ টার দিকে কোনো এক সময় দুর্বৃত্তরা মন্দির থেকে নীল পূজার শিবের ২ টি দেল প্রতীকী নিয়ে ৫ শত গজ দূরে একটি জায়গায় খালের মধ্যে ফেলে রেখেছে বলে জানা যায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সন্ধায় পূজার আনুষ্ঠানিক শেষ করে সন্ন্যাসীর দল মন্দির ত্যাগ করে। পরে রাত ১০ টার দিক মন্দিরে এসে পৌছালে নীল প্রতীকী ৪ টি দেলের মধ্যে ২ টি দেল না দেখে সন্ন্যাসীরা খুজাখুজি করে। অনেক খুজার পর না পেয়ে পুলিশ প্রশাসনকে খবর দেয়।
তাৎক্ষণিক রাত ১২ টায় দিকে পৌর মেয়র সহ প্রশাসনের কর্মকর্তা, পুলিশ বাহিনী উপস্থিত থেকে সার্বিক ভাবে তল্লাশি চালিয়ে উদ্ধার করা সম্ভব হয় নাই।
১৪ এপ্রিল পরেরদিন সকাল ৮ টার দিকে স্থানীয় লোকজন চলার পথে দেখতে পায় একটি পরিত্যাক্ত খালের মধ্যে ২ টি দেল প্রতীকী ফেলে দিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।

এসময় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন সদর সার্কেল সুমন চন্দ্র, পৌর মেয়র অমিতাভ বোস, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাসুম রেজা, কোতয়ালী ওসি এম এ জলিল, কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আশরাফ হোসেন, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাহিদ হোসেন মোল্লা, ইউনিয়ন হিন্দু বৈদ্ধ খ্যিষ্টান ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক বিপ্লব বোস প্রমূখ।

এব্যাপারে কোতয়ালী থানার ওসি এম এ জলিল জানান, মঙ্গলবার রাতে সদরের কৃষ্ণনগর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অস্থায়ী মন্দিরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা হবে বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা।

নীল পূজা সনাতন ধর্মাবলম্বীদের (হিন্দু) ধর্মীয় উৎসব হলেও চৈত্রসংক্রান্তির উৎসব এক সময় তা সর্বজনীন এক উৎসবে পরিণত ছিলো। কৃষ্ণনগর গ্রাম আমার জন্মভূমি ছোটবেলা থেকেই এই পূজা দেখে ও শুনে আসছি। এই স্কুল মাঠে প্রায় শত বছর ধরে এই কৃষ্ণনগর গ্রাম সহ পার্শবর্তী গ্রমের সনাতন ধর্মীয় মানুষ নীলপূজা ও মেলার উৎসবে অংশগ্রহণ করে আসছে। আগের দিনে এই মেলায় নীল নাচ পরিবেশন হয়েছে। নীল নাচ ঠিক আগের মতো যত্রতত্র দেখা মেলে না এখন। কালের পরিক্রমায় বাঙালির এ ঐতিহ্যের সংস্কৃতি বিলুপ্তির দিকে যাচ্ছে। পূজা উৎসব ধরে রাখার জন্য এবারে বিশ্ব করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি থেকে মুক্তি পাওয়ার লক্ষ্যে এই নীলচাঁদ প্রতীকে পূজা অর্পনের আয়োজন করা হয়েছিলো। কিছু সংখ্যক দুর্বৃত্তরারা এই ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে বলে আমি মনে করি।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

আগষ্ট ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« জুলাই  
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।