• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১২ই আগস্ট, ২০২২ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
ফরিদপুরে তরুণী গণধর্ষণের ঘটনায় মূলহোতা সহ গ্রেফতার ৩

নিজস্ব প্রতিনিধি:- ফরিদপুরের মধুখালীতে মা-মেয়ের চক্রান্তে এক তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত দুই নারী সহ ৩ ব্যাক্তিকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। বুধবার (১৪ এপ্রিল) দুপুরে আটককৃতদের ফরিদপুর আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) রাতে ভুক্তভোগী ওই তরুণীর পিতা বাদি হয়ে তিন জনের নামে এবং অজ্ঞাত আরো ৩/৪ ব্যাক্তিকে আসামী করে মানবপাচার ও ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন।

ভুক্তভোগী ওই তরুণীর পিতা জানান, ঘটনার সাথে জড়িত রোজিনা ও তার মা পারুল আক্তার এবং জাকিরুল হক নামে তিন ব্যাক্তির নামে এবং অজ্ঞাত আরো ৩/৪ ব্যাক্তির নামে মামলা দায়ের করেছি। তিনি আরো জানান, আমার মেয়ে এখন কিছুটা সুস্থ্য। ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি সেন্টারে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

আরও পড়ুন এই খবরের  মূল খবর

## ফরিদপুরে প্রতিবেশীর চক্রান্তে এক সন্তানের জননী গণধর্ষণের শিকার

মধুখালী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রথিন্দ্র নাথ তরফদার বলেন, মঙ্গলবার রাতে ওই তরুণীর পিতা বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেন। রাতেই অভিযান চালিয়ে জাকিরুল হক নামের এক ব্যাক্তিকে আটক করা হয়। এর আগে রোজিনা ও তার মা পারুল আক্তারকে আটক করা হয়।

তিনি বলেন, আটককৃত রোজিনা ও তার মা পারুল আক্তার মধুখালী আশ্রায়ন কেন্দ্রের বাসিন্দা। এছাড়া জাকিরুল হকের বাড়ি গোপালগঞ্জ জেলায়। সে মধুখালীতে অবস্থিত ফরিদপুর চিনিকলের বিদ্যুৎ বিভাগে চুক্তিভিত্তিক কর্মচারী হিসেবে কর্মরত।

আটককৃতদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া ওই তরুণী সুস্থ্য হলে ২২ধারায় তার জবানবন্দি নিয়ে ঘটনার সাথে আরো জড়িতদের আটক করা হবে।

ফরিদপুর চিনিকলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কৃষিবিদ মোঃ গোলাম কবির জানান, তরুণীর সাথে খুবই ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটানো হয়েছে। এ ঘটনায় চিনিকলের বিদ্যুৎ বিভাগের চুক্তিভিত্তিক কর্মচারী জাকিরুল হক জড়িত জানতে পেরেছি, পুলিশ তাকে আটক করেছে। চিনিকল থেকেও তাকে অব্যাহতি দেওয়া হবে।

ভুক্তভোগী ওই তরুণীর মা জানান, মেয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি সেন্টারে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তবে মঙ্গলবার রাতে ফরেনসিক পরীক্ষা নীরিক্ষা করার কথা থাকলেও তা করা হয়নি। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন বৃহস্পতিবার পরিক্ষা নীরিক্ষা করা হবে।

জানা যায়, মধুখালী পৌর এলাকার আশ্রায়ন কেন্দ্রে বসবাস করেন পারুল আক্তার ও তার মেয়ে রোজিনা। পাশ্ববর্তী গ্রামের একটি মেয়ে (১৮) রোজিনার বান্ধবী। ওই মেয়েটির বিয়ে হয়েছে উপজেলার মাকড়াইল গ্রামে। তার তিন বছরের একটি সন্তান রয়েছে। কয়েকদিন আগে ওই মেয়েটি তার পিতার বাড়িতে বেড়াতে আসে। বাড়িতে আসার পরই রোজিনা ওই মেয়েটির বাড়ি গিয়ে দুই বান্ধবী মিলে নানান গল্প গুজব করে।

গত রোববার (১১ এপ্রিল) রোজিনা ও তার মা পারুল সহ কয়েকজন ওই মেয়েটির বাড়িতে যায়। ওই বাড়িতে গিয়ে বিভিন্ন গল্প গুজব করে চলে আসেন। কিছুক্ষন পরে রোজিনা ওই বাড়িতে গিয়ে বলে তোদের বাড়িতে মোবাইল ফেলে গেছি, মোবাইলটি দে। কিন্তু ওই মেয়েটি বলে মোবাইল এখানে রেখে যাসনি। বিষয়টি নিয়ে দুজনের মধ্যে তর্কবিতর্ক হয়। এক পর্যায়ে রোজিনা ওই বাড়ি থেকে চলে আসে। এরপর বিকালে রোজিনা ও তার মা পারুল কয়েকজন লোক সাথে নিয়ে ওই মেয়েটিকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে আসে। এরপর দুই দিন তারা বিভিন্ন স্থানে নিয়ে গিয়ে ওই তরুণীকে চেতনানাশক খাইয়ে অচেতন করে গণধর্ষণে সহযোগিতা করেন। এরপর মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) সকালে মেয়েটিকে অচেতন অবস্থায় তাদের বাড়িতে ফেলে রেখে আসে।

ভূক্তভোগী ওই তরুণী এখন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তরুণী জানায়, মোবাইল চুরির অপবাদ দিয়ে রোজিনা ও তার মা পারুল আমার সবকিছু শেষ করে দিয়েছে। রোববার বিকালে আমাকে তুলে নিয়ে বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুর এলাকার একটি বাড়িতে রাখে। রাতে খাবারের সাথে আমাকে কিছু খাওয়ানো হয়। আমি কিছুটা অচেতন হয়ে পড়ি। এরই মধ্যে আমার উপর ঝাপিয়ে পড়ে এক ব্যাক্তি। জোরপূর্বক আমাকে ধর্ষণ করে। পরদিন সকালে আমি রোজিনাকে বিষয়টি বললে ও আমার উপর তেড়ে ওঠে। আমার কাছে মোবাইলও নেই যে আমি কাউকে কিছু জানাবো।

মেয়েটি আরো জানায়, পরদিন সোমবার সেখান থেকে আমাকে নিয়ে আসা হয় মধুখালী চিনিকল মসজিদ সংলগ্ন একটি বাড়িতে। রাতে সেখানেও আমাকে কিছু খাওয়ানো হয়। এরপর আমি কিছুটা অচেতন হয়ে পড়ি। সেখানেও দুই ব্যাক্তি আমাকে ধর্ষণ করে। আমি অসুস্থ্য হয়ে পড়ি। আমাকে ওরা স্যালাইন খাওয়ায়। এরপর আমার অবস্থা খারাপ হতে দেখে মঙ্গলবার সকালে আমাকে বাড়ির সামনে ফেলে রেখে আসে।

মেয়েটি আরো জানায়, যারা আমার সাথে খারাপ আচরন করেছে তাদের নাম আমি জানিনা। তবে দেখলে চিনতে পারবো। যে বাড়িতে রাখা হয়েছিল সেটাও আমি চিনবো। একজন লোক একটু বয়স্ক, মুখে দাড়ি আছে। আমার সাথে যে অমানবিক অত্যাচার করা হয়েছে তার দৃষ্ঠান্তমূলক বিচারের দাবী জানাই।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

আগষ্ট ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« জুলাই  
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।