• ঢাকা
  • শনিবার, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
বোয়ালমারী পৌরবাসী চান ক্লিন ইমেজ প্রার্থী‘ বিএনপির এককপ্রার্থী, কে পাচ্ছেন নৌকা?  

ছবি- বোয়ালমারী পৌরসভা

বোয়ালমারী-আলফাডাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি : ফরিদপুরের বোয়ালমারী পৌরসভা নির্বাচনে তফসীল ঘোষণার পরপরই প্রার্থীর দৌড়ঝাঁপে নির্বাচনী এলাকা সরগরম হয়ে উঠেছে। আওয়ামী লীগের পাঁচ প্রার্থী নৌকার টিকিট পেতে দলীয় মনোনয়ন কিনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জমা দিয়েছেন। অন্যদিকে বিএনপির প্রার্থী মাঠে রয়েছে দুইজন। তবে রবিবার রাতে বোয়ালমারী উপজেলা বিএনপি ও পৌর বিএনপির এক বিশেষ সভায় একক প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে। ভোটারা নম্রভদ্র ও ক্লিন ইমেজের  প্রার্থী দেখে ভোট দিবেন বলে জানা গেছে।
দ্বিতীয় ধাপে গত ০৮ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশন (ইসি) ৬১টি পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা করেছে। যার মধ্যে রয়েছে ফরিদপুরের বোয়ালমারী পৌরসভা। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রার্থীরা মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন পেতে চালাচ্ছেন শেষ মুহুর্তের তৎপরতা। দেশের বিভিন্ন পৌরসভার ন্যায় বোয়ালমারীর প্রার্থীরাও নিজ নিজ দলের মনোনয়ন পেতে মরিয়া হয়ে লড়ছে। শুরু হয়েছে গ্রুপিং-লবিংসহ নানা ধরনের জল্পনা পরিকল্পনা। বোয়ালমারী পৌর নির্বাচন আওয়ামী লীগের জন্য হয়ে উঠেছে প্রেস্টিজ ইস্যু। পৌরসভার জন্মলগ্ন থেকে মেয়র পদটি আওয়ামী লীগের হাত ছাড়া। গত ২০১৫ সালের নির্বাচনেও শেষ পর্যন্ত আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর কাছে নৌকার প্রার্থী হেরে যায়। ফলে এবার মেয়র পদটি দখলে নিতে তৃণমূল নেতৃবৃন্দ থেকে শুরু করে দলের হাই কমান্ড পর্যন্ত তৎপর হয়ে উঠেছেন আওয়ামী লীগ। যার যার জনপ্রিয়তা দেখাতে প্রথম শ্রেণির এ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশি ৫ প্রার্থী আগে থেকেই মাঠে নেমে পড়েছেন। তাঁরা নেতাকর্মী ও ভোটারদের দৃষ্টি আকর্ষন করার জন্য সভা, সমাবেশ, শোডাউন, গণসংযোগের পাশাপাশি দলীয় উপর মহলের সাথে লবিং অব্যাহত রেখেছেন। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশিরা হলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান এম এম মোশাররফ হোসেনের দুইভাই বর্তমান মেয়র পৌর আওয়ামী লীগের সদস্য মো. মোজাফফর হোসেন বাবলু মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হাসানুজ্জামান মিয়া মুকুল, বোয়ালমারী গর্ভনর খ্যাত মরহুম আব্দুল হামিদ বাবু মিয়ার ছেলে পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক নেতা মো. সেলিম রেজা লিপন, উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জেলা যুবলীগের সদস্য মো. লিটন মৃধা এবং ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সাহাবুদ্দিন সাফু।
অপরদিকে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীরা হলেন, সাবেক মেয়র পৌর বিএনপির সদস্য আ. শুকুর শেখ, জেলা যুবদলের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি মরহুম সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে ইমরান হোসেন। তাঁরা দু’জন বিএনপির প্রার্থী হিসেবে মাঠে থাকলেও রবিবার রাতে উপজেলা ও পৌর বিএনপির এক বিশেষ সভায় সাবেক মেয়র আ. শুকুর শেখকে একক প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে বলে পৌর বিএনপির সহসভাপতি খান আতাউর রহমান গতকাল সোমবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা দলের টিকিটি পেতে ঢাকায় গিয়ে দলীয় মনোনয়ন ফরম কিনে ইতিমধ্যেই জমা দিয়েছেন। উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগ যৌথস্বাক্ষরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির আপন দুইভাইয়ের নাম ও গত নির্বাচনের বিদ্রোহী প্রার্থীসহ কেন্দ্রে তিনজনের নাম পাঠালেও জেলা আওয়ামী লীগের সমন্বয়ে এবং কেন্দ্রীয় নেতাদের সুপারিশে আরো দু’জন মনোনয়ন ফরম ক্রয় করে কেন্দ্রে জমা দিয়েছেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আসাদুজ্জামান মিন্টু বলেন, জাতীয় নির্বাচনে ফরিদপুর-১ (বোয়ালমারী, মধুখালী, আলফাডাঙ্গা) আসনে সব সময় আওয়ামী লীগের প্রার্থী জয়ী হলেও বোয়ালমারী পৌরসভার মেয়র পদটি রয়ে গেছে অধরা। সেজন্য মেয়র পদে সবচেয়ে যোগ্য এবং জনপ্রিয় ব্যক্তিকেই মনোনয়ন দেওয়া উচিত। আশা করি দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ বুঝে শুনে নৌকার মাঝি ঠিক করবেন। এদিকে প্রার্থীদের পাশাপাশি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমএম মোশাররফ হোসেন ও সাধারন সম্পাদক শাহজাহান মীরদাহ পিকুলও ঢাকায় গিয়েছেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান মীরদাহ পিকুল বলেন, দু’তিনদিনের মধ্যে দলের মনোনয়ন বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হতে পারে। সভার সিদ্ধান্ত শেষেই জানা যাবে কে হচ্ছেন নৌকার প্রার্থী।
কে হচ্ছেন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতীক নৌকার মাঝি সেটা হইতো ১৮ ডিসেম্বরের মধ্যেই জানা যাবে। কারণ ২০ ডিসেম্বর মনোনয়ন জমার শেষ তারিখ। এর আগেই দলীয় প্রার্থী ঠিক করতে হবে। আগামী ১৬ জানুয়ারি শনিবার এ পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

ডিসেম্বর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« নভেম্বর  
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।