• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে নভেম্বর, ২০২০ ইং
ভারতে বাদুড়ের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত : আইসিএমআর

ভারতে বাদুড়ের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত : আইসিএমআর

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের প্রভাবে বেসামাল অবস্থার মধ্যে ভারতের মেডিক্যাল রিসার্চ কাউন্সিলের (আইসিএমআর) গবেষকরা এবার নতুন একটি চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ করেছেন।

আইসিএমআরের গবেষকরা বলেছেন, তাঁরা ভারতের কেরালা, হিমাচল প্রদেশ, পুদুচেরি ও তামিলনাড়ুর দুই প্রজাতির বাদুড়ের মধ্যে ভিন্ন ধরনের এক করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব খুঁজে পেয়েছেন। ভারতীয় এই বিজ্ঞানীরা বাদুড়ের শরীরে খুঁজে পাওয়া এই ভাইরাসের নাম দিয়েছেন ব্যাট করোনাভাইরাস (বিটি-কোভ), খবর ইন্ডিয়া টুডে।

এই গবেষক দলের সদস্য ও পুনের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজির বিজ্ঞানী ডা. প্রজ্ঞা ডি যাদব বলেছেন, এই ব্যাট করোনাভাইরাস মানব দেহে কোনো রোগ সৃষ্টি করতে পারে কি না, সে ব্যাপারে এখনো কোনো প্রমাণ কিংবা গবেষণা নেই।

আইসিএমআরের বিজ্ঞানীদের করোনাভাইরাস নিয়ে নতুন এই গবেষণা ইন্ডিয়ান জার্নাল অব মেডিক্যাল রিসার্চে প্রকাশিত হয়েছে। কেরালা, হিমাচল প্রদেশ, পুদুচেরি ও তামিলনাড়ুর রোসেটাস ও টেরোপাস প্রজাতির ২৫টি বাদুড়ের শরীর পরীক্ষার ফল বিটি-কোভ পজিটিভ পাওয়া গেছে।

যাদব বলেন, এই ব্যাট করোনাভাইরাসের সঙ্গে কোভিড-১৯ মহামারির জন্য দায়ী সার্স-কোভ২ ভাইরাসের কোনো সম্পর্ক নেই। তবে ২০১৮ ও ২০১৯ সালে কেরালায় টেরোপাস প্রজাতির বাদুড়ের শরীরে নিপাহ ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়।

ভারতের বিভিন্ন প্রদেশের রোসেটাস ও টেরোপাস প্রজাতির বাদুড়ের শরীরের করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ শীর্ষক এই গবেষণায় বিজ্ঞানীরা বলেছেন, প্রাকৃতিকভাবেই বাদুড়কে অনেক ভাইরাসের বাহক মনে করা হয়। এর মধ্যে কিছু ভাইরাস মানবদেহে সংক্রমণ ঘটায়। অতীতে ভারতে টেরোপাস প্রজাতির বাদুড়ের মাধ্যমে নিপাহ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হয়েছিল।

ধারণা করা হচ্ছে, সম্প্রতি বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া সিভিয়ার অ্যাকিউট রেসপিরেটরি সিন্ড্রোম করোনাভাইরাস ২ (সার্স-কোভ-২)-এর সঙ্গে বাদুড়ের সম্পর্ক রয়েছে।

গবেষণায় বলা হয়েছে, বর্তমানে জনসংখ্যা কাঠামো ও বাস্তুসংস্থান সংক্রান্ত কৌশলগুলোতে পরিবর্তন আসায় বাদুড়ের সঙ্গে অন্যান্য প্রাণী ও মানুষের সংস্পর্শ ঠেকানো প্রায় চ্যালেঞ্জিং। বাদুড়ের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ভাইরাসজনিত প্রাদুর্ভাব এড়ানোর জন্য প্রতিনিয়ত অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে নিরবচ্ছিন্ন নজরদারি দরকার বলে পরামর্শ দিয়েছেন ভারতীয় এই বিজ্ঞানীরা।

গবেষকরা বলেছেন, যদিও একই গোত্রের বিভিন্ন করোনাভাইরাস বাদুড়ের শরীরে থাকলেও ক্লিনিক্যাল কোনো উপসর্গ প্রকাশ পায় না। তবে মানবদেহ ও অন্যান্য প্রাণীর মধ্যে এই ভাইরাসগুলো সংক্রমণ ঘটালে তীব্র শ্বাসকষ্ট, ফুসফুসে প্রদাহ ও অন্যান্য নিউরোলজিক রোগ হতে পারে। তবে অল্প কিছু করোনাভাইরাস কেন শুধু মানবদেহেই সংক্রমণ ঘটায় সেব্যাপারে এখনো কোনো ধরনের বোঝাপড়ায় পৌঁছাতে পারেননি বিজ্ঞানীরা।
সুত্র ঃ Ntv online

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

নভেম্বর ২০২০
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« অক্টোবর  
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।