• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৮ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho

শিক্ষার ডিজি ও এমপি নিক্সন চৌধুরীর কাছে শিক্ষকদের লিখিত দরখাস্ত

ভাঙ্গা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ

ছবি-উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তা সৈয়দ আহমেদ জমসেদ

মোঃ রমজান সিকদার, ভাঙ্গা(ফরিদপুর)সংবাদদাতা-১৭/০২/২০২১,

ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সৈয়দ আহমেদ জমসেদের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ দায়ের করেছেন উপজেলা ৪০টি মাদ্রাসা ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগন।

অভিযোগ পত্রে তার বিরুদ্ধে শিক্ষক নিয়োগ বানিজ্য, নতুন বই বিতরনে কৃত্রিম সংকট দেখিয়ে প্রতিষ্টান থেকে অর্থ আদায়, অসুস্থাতার অজুহাতে ভাঙ্গায় নিয়মিত অফিস না করে তার বাসস্থান ফরিদপুর তেতুলতলা মিষ্টির দোকানে অফিস বানানো, শিক্ষকদের সাথে খারাপ আচরন সহ বিভিন্ন বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করেন তারা। অভিযোগ লিপিটি শিক্ষকগন স্বহস্তে মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগের মহাপরিচালক গোলাম ফারুক ও ফরিদপুর-৪ আসনের সাংসদ মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সনের হাতে তুলে দেন।

অভিযোগ পেয়ে সাংসদ বিষয়টি নিয়ে শিক্ষকদের আশ্বাস দিয়ে বলেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সৈয়দ আহমেদ জমসেদ দীর্ঘ সাড়ে তিন বছর ভাঙ্গাতে চাকুরি করে যাচ্ছেন। তিনি একজন অসুস্থ মানুষ। ঠিকমত অফিস করতে পারেননা। অথচ ভাঙ্গা একটি ভাইটাল এড়িয়া। এখানে চৌকস ও সক্ষম কর্মকর্তার প্রয়োজন। আমি দ্রুত ভাঙ্গা উপজেলার শিক্ষকদের অভিযোগের ভিত্তিতে ও ভাঙ্গায় শিক্ষা পরিবেশ চিন্তা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য উর্দ্ধতন কর্মকর্তার সাথে আলোচনা করব।

অভিযোগ লিপিতে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, মাধ্যমিক কর্মকর্তা ২০১৭ সালের জুন মাসে ভাঙ্গায় যোগদান করেন। যোগদানের পর থেকে তিনি ৬ মাসও অফিস করে নাই। তার শারীরিক অসুস্থতার জন্য ঠিকমত অফিস না করায় দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষা ব্যবস্থা চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। চরম অসুস্থতার মধ্যেও তিনি শিক্ষক নিয়োগে প্রতিষ্টান গুলোর কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। তার জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারি নিয়োগে কতর্ৃপক্ষকে দুনর্ীতির আশ্রয় নিতে হয়েছে। বিভিন্ন সময়ে তিনি স্কুল পরিদর্শনের নামে তার মাইক্রোবাস ভাড়া ও সম্মানীভাতা তাকে দিতে হতো রুটিন মাফিক। বছরের প্রথমে শিক্ষাথর্ীদের হাতে নতুন বই তুলে দেওয়ার সময় তিনি বইয়ের কৃত্রিম সংকট দেখিয়ে প্রতিষ্টানের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেওয়া ছিল তার বাৎসরিক ইনকামেন অংশ। প্রতিষ্ঠানের প্রধানগন তার কাছে স্কুলে বিভিন্ন অনলাইন ভিত্তিক কোন কাজে গেলে তার সাথে দুর্ব্যহার সহ টাকা হাতিয়ে নেওয়া ছিল তার স্বভাব।

অভিযোগ লিপি দায়ের করে শিক্ষকগন স্থানীয় সংবাদকর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেন। সেখানে শিক্ষকগন দাবি করেন, ফরিদপুর জেলার মধ্যে ভাঙ্গা উপজেলা একটি গুরুত্বপুর্ন শহর। এখানে ৪৪টি শিক্ষা প্রতিষ্টান রয়েছে। প্রতি বছর শিক্ষার্থীদের ফলাফল ভালো হয়। কিন্ত এই সৈয়দ আহমেদ জমসেদ ভাঙ্গায় যোগদানের পরই শিক্ষকদের উপর তার কুদৃষ্টি ও অর্থ বানিজ্যর কারনে শিক্ষার মান নষ্ট হয়ে গেছে। অনতিবিলম্বে বিভাগীয় তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি করেন শিক্ষকগন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জনৈক প্রধান শিক্ষক জানায়, এর আগে এই মাধ্যমিক কর্মকর্তা বোয়ালমারি ও সদরপুরে কর্মরত ছিলেন। সেখানেও তার অনিয়ম ও দুর্নীতির কারনে তার বিরুদ্ধে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের স্থানীয় জনসাধারন ঝাড়ু মিছিল রেব করেন। তীব্র আন্দোলনের মুখে তাকে কর্তৃপক্ষ ভাঙ্গায় বদলি করেন।

বিষয়টি নিয়ে বুধবার উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তার কার্যালয়ে স্থানীয় সংবাদকর্মীরা পরিদর্শনে গেলে সেখানেও ঘটনার সত্যতা মেলে। তাকে দুপুর ১টা পর্যন্ত অফিসে পাওয়া যায়নি। উক্ত অফিসে একাডেমি সুপার ভাইজার প্রলাদ বিশ্বাষ তার টেবিলে কর্মরত ছিলেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি জানায়, স্যার অসুস্থ্য তাই অফিসে নেই। কবে বা কখন আসবে তাও জানিনা।

এব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তা সৈয়দ আহমেদ জমসেদ মুঠোফোনে জানায়, তিনি একজন গুরুত্বর অসুস্থ্য রুগি। তাই নিয়মিত অফিস করতে পারেননা। তবে তার বিরুদ্ধে যেসকল অভিযোগ শিক্ষার বিভাগের ডিজি ও মাননীয় সাংসদের কাছে প্রধান শিক্ষকগন করেছেন তা সত্য নয়। আমাকে বিতারিত করতেই একটি মহল নানা পায়তারা শুরু করেছে।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

ডিসেম্বর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« নভেম্বর  
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।