• ঢাকা
  • সোমবার, ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ ইং
গোবিন্দগঞ্জে ২১আগষ্ট বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলায় নিহতের স্বরনে শোক র‌্যালী স্বরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা শাখার আয়োজনে ২০০৪ এর ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতের স্বরনে শোক র‌্যালী, স্বরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।
আজ ২১ আগষ্ট বিকেলে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে এ স্বরণ সভা উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ -সভাপতি প্রধান আতাউর রহমান বাবলুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে ঢাকা থেকে মুঠোফোনে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সাংসদ প্রকৌশলী মনোয়ার হোসেন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র আতাউর রহমান সরকার, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ প্রধান।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কোচাশহর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান মন্ডলের সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি কাজী সাখায়াত হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ভিপি সৈয়দ শরিফুল ইসলাম রতন, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মিয়া আসাদুজ্জামান হিরু, দপ্তর সম্পাদক ফিরোজ খান নুন,উপ-প্রচার সম্পাদক অধ্যক্ষ আব্দুর নুর, উপজেলা আওয়ামী কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান খন্দকার জাহাঙ্গীর আলম,জেলা আওয়ামী যুবলীগের সাবেক সহ সভাপতি আলতামাসুল ইসলাম শিল্পী,উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি তাহেদুল ইসলাম রকেট, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন ঠান্ডু, বাস্তুহারা লীগের সভাপতি সোহরাব হোসেন,এমপি মহাদয়ের পিএ খায়রুল আলম,উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ন আহবায়ক যথাক্রমে নজরুল ইসলাম,জালাল উদ্দিন রুমি, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন আহবায়ক যথাক্রমে রাজু সরকার, ফরহাদ আলী, শাকিব খান লেবু, সরকারী কলেজ শাখার যুগ্ন আহবায়ক পীরজাদা আব্দুল কাইয়ুম মন্ডল প্রমূখ।

শোক র‌্যালী পৌরসভার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সভা স্থলে এসে উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা ক্বারী হোসাইনের কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে স্বরণ সভা শুরুর আগে ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত সকলের স্বরণে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।
বক্তারা বলেন, বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ১৫ আগষ্ট পাকিস্থান সরকারের দালাল চক্র বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের ঘৃন্য ষড়যন্ত্রকারীরা আওয়ামী লীগের অভিভাবক বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার করার উদ্দেশ্যে ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলা চালায়।
আজ সেই রক্তাক্ত স্নাত ভয়াল ভয়ানক ২১শে আগস্ট। বারুদের আর রক্তের বীভৎস ভয়ংকর রাজনৈতিক হত্যার ১৬তম বার্ষিকী। ২০০৪ সালের এই দিনে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের ” সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও দূর্নীতি বিরোধী ” শান্তির শোভাযাত্রার পূর্ব সমাবেশে নারকী গ্রেনেড হামলার শিকার হয়ে ঝরে যায় ২৪ টি প্রাণ। আহৃত হয় পাঁচশতাধিক। বিএনপি ও জামায়াত জোট সরকারের সময়ে পরিকল্পিত এ হত্যা কান্ড চালানো হয়। সেদিন রক্তের বীভৎস ঝড়ের প্রচন্ডতায় মলিন হয়েছিলো স্বাধীন বাংলা ও বাঙ্গালির মুখ। সেদিন সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আয়োজিত বিকেল ৪টার জনসভায় আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মী সহ সাধারণ জনগণের কানায় কানায় ভরে উঠা আর স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠা জীবন্ত বঙ্গবন্ধু এভিনিউ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় প্রাঙ্গনে এক নিমিষেই পরিণত হয়েছিল ভয়ংকর মৃত্যুপুরীতে। আর রচিত হয়েছিল ভয়ংকর রাজনৈতিক কলংঙ্কিত অধ্যায়। সমাবেশের জন্য ব্যবহত ট্রাকে ঘাতকের নিক্ষিপ্ত গ্রেনেড বিস্ফোরণ হলে বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্যকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা সহ কোনো নেতাই প্রাণে রক্ষা পেতো না আর জননেত্রী শেখ হাসিনা সহ আওয়ামী লীগ নেতাদের শেষ করে দেওয়ার উদ্দেশ্যই ছিলো ঘাতক চক্রের মুল পরিকল্পিত পরিকল্পনা। সেই দিন শুধু গ্রেনেড বিস্ফোরণী করেননি ঘাতকেরা বৃষ্টির মতো গুলি ছুরেছিলো শেখ হাসিনার গাড়িতে। শেখ হাসিনা সহ আওয়ামী লীগের নতা কর্মী কে টার্গেট করে খই ফোটার মতো একের পরে এক অর্ণবের বিস্ফোরণ ঘরটায় ঘাতকেরা আর জীবন্ত এভিনিউ পরিণত হয়েছিল ভয়ংকর রক্ত মাংসের স্তূপে।
কিন্তু মহান আল্লাহ তা’য়ালার অশেষ কৃপায় তিনি বেঁচে যান। তারা আরো বলেন, ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলার মাষ্টার মাইন্ড কুলাঙ্গার তারেক জিয়াকে বিদেশ থেকে নিয়ে এসে দ্রুত ২১ আগষ্টের মামলার সাজা কার্যকর করার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

এপ্রিল ২০২৪
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« মার্চ    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।