• ঢাকা
  • শনিবার, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
মুজিববর্ষের উপহার’ সালথায় ঘর পেয়েছে ৩৫টি গৃহহীন পরিবার

মনির মোল্যা, সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি: মুজিববর্ষে ফরিদপুরের সালথায় মাত্র ৩৫টি ভূমি ও গৃহহীন পরিবারকে নতুন ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছে সরকার। উপজেলায় যাদের জমি এবং ঘর নেই- স্থানীয় প্রশাসনের তত্বাবধানে তাদের এসব বসতঘর মুজিববর্ষের উপহার হিসেবে দেওয়া হচ্ছে। তবে আশাপাশে উপজেলার তুলনায় সালথায় কম ঘর বরাদ্দ পাওয়ায় উপজেলার অনেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ।

ফরিদপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মুজিববর্ষ উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে এ জেলায় মোট ১ হাজার ৪ শ’ ৭০টি ভুমি ও গৃহহিন পরিবার সেমিপাকা নতুন বসতঘর নির্মাণ করে দেয়া হচ্ছে। এরমধ্যে জেলা সদরে ২৯২টি, ভাঙ্গায় ২৫০টি, আলফাডাঙ্গায় ২২০টি, সদরপুরে ১৭৮টি, চরভদ্রাসনে ১৫০টি, মধুখালিতে ১৪৮টি, বোয়ালমারীতে ৯২টি, নগরকান্দায় ১০৫টি ও সালথায় মাত্র ৩৫টি বসতঘর বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। পাশর্^বর্তী উপজেলার তুলনায় সালথায় নতুন বসতঘর বরাদ্দের ব্যবধান আকাশ-পাতাল হয়েছে বলে মন্তব্য করে অনেকে হতাশা প্রকাশ করেছেন।

ফিরোজ মাহমুদ নামে সালথা উপজেলা সদরের এক বাসিন্দা তার ফেসবুকে ফরিদপুরে শেখ হাসিনার উপহার ঘর পাচ্ছে ১৪৭০ গৃহহিন পরিবার’ লেখা তথ্য সম্বলিত একটি স্টিকার আপলোড দিয়ে লিখেছেন, সালথা উপজেলায় ঘরের সংখ্যা এতো কম হওয়ায় আমি হতাশ। আশা করি আগামীতে সালথা অন্য উপজেলা থেকে পিছিয়ে থাকবে না। ফিরোজ আহম্মেদ নামে সদরের আরেক সচেতন ব্যক্তি তার ফেসবুক পেইজে লিখেছেন, ফরিদপুরে ৯টি উপজেলায় ১৪৭০ গৃহহিনদের ঘরের মধ্যে সালথা উপজেলায় মাত্র ৩৫টি। আমরা সালথাবাসী হতাশ। শুধু মনির মোল্যা আর ফিরোজ নয়। এমন অনেকে তাদের ফেসবুকের মাধ্যমে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মাদ হাসিব সরকার বলেন ‘মুজিববর্ষে গৃহহীনদের জন্য ঘর তৈরি করে দিতে উদ্যোগ নিয়েছেন সরকার। এই ঘরগুলো সরকারি খাস জমিতে নির্মাণ করা হচ্ছে। সালথার বেশির ভাগ খাস জমি দখলে রেখেছে জনগণ। যেকারণে ঘর বরাদ্দের সংখ্যা কম। পরবর্তীতে খাস জমিগুলো উদ্ধার করে নতুন সেই জমিতে ২য় পর্যায় গৃহ নির্মাণের প্রক্রিয়া শুরু হবে। বর্তমানে ৩৫টি নতুন বসতঘরের কাজ প্রায় শেষের পথে। সরকার নির্দেশিত সময়ের মধ্যেই এসব ঘর নির্মাণ কাজ শেষ করে সুবিধাভোগীদের মাঝে বুঝিয়ে দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য মজিব শতবর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় ৩৫টি ভূমি ও গৃহহীন পরিবারকে সেমিপাকা নতুন ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হচ্ছে। প্রতিটা ঘরে জন্য ২ শতাংস করে সরকারি খাস জমি বন্দোবস্ত করা হয়েছে। প্রতিটি ঘর নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা। ইটের দেওয়াল, কংক্রিটের মেঝে এবং টিনের ছাউনি দিয়ে তৈরি এসব সেমিপাকা ঘরে ২টি শয়ন কক্ষ, ১টি খোলা বারান্দা, ১টি রান্না ঘর এবং ১টি শৌচাগার থাকবে।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

ডিসেম্বর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« নভেম্বর  
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।