• ঢাকা
  • বুধবার, ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
ভাঙ্গার ইউএনও-এসিল্যান্ডের অপসারনের দাবীতে মানববন্ধন \ মহাসড়ক অবরোধ

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় সরকারি জায়গায় দোকান বরাদ্দ নিয়ে দূর্নীতি ও অনিয়মের সাথে জড়িত ইউএনও এবং এসিল্যান্ডের অপসারনের দাবীতে মানববন্ধন হয়েছে।

এসময় মানববন্ধন শেষে হাজার হাজার ব্যবসায়ী ও রাজনৈতিক নেতা-কর্মী ঘন্টাব্যাপি মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করে।

অবরোধের কারনে রাস্তার দুই প্রান্তে শত শত যানবাহন আটকা পড়ে। পরে পুলিশের উদ্ধোর্তন কর্মকর্তাদের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেয়।

সোমবার সকালে পুর্ব নির্ধারিত ব্যবসায়ীদের মানববন্ধন কর্মসুচীতে সকাল হতেই হাজার হাজার ব্যবসায়ী ও রাজনৈতিক নেতা-কর্মী ভাঙ্গা বাজারের প্রবেশদ্বার থানা রোডে অবস্থান নেয়।

কড়া পুলিশি পাহাড়ায় বেলা ১১টায় ব্যবসায়ীরা হাতে হাত রেখে ঘন্টাব্যাপি মানব বন্ধন করে অনিয়ম ও দূর্নীতির সাথে জড়িত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রকিবুর রহমান খান এবং উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভুমি) আল-আমিন মিয়ার অপসারন সহ তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেন।

মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ফাইজুর রহমান, ভাঙ্গা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শাহাদাৎ হোসেন, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান শাহিনুর রহমান শাহিন, ভাঙ্গা বাজার বণিক সমিতির সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব আবু জাফর মুন্সি, সরকারি ভাঙ্গা কেএম কলেজের সাবেক ভিপি ও ছাত্রলীগ নেতা লাবলু মুন্সি, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারন সম্পাদক জাহিদ মুন্সি, ঘারুয়া ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক শফিউদ্দিন মোল্লা, আলগী ইউপি সাবেক চেয়ারম্যান ম.ম. ছিদ্দিক, পৌর কাউন্সিলর ওমর ফারুক হবি, উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আইয়ুব মোল্লা প্রমুখ।

উল্লেখ্য ভাঙ্গা বাজারের প্রান কেন্দ্রে ৫৫ নং সদরদী মৌজার এসএ, দাগনং ৪২৩,৪২৪ ও বিএস দাগ নং ১৮৫২,১৮৫৩, ১নং খাসঁ খতিয়ানে ৬২ শতাংশ জমি রয়েছে। এই জমিতে দীর্ঘদিন ধরে ভাঙ্গা ঈদগাহ মাদ্রাসা ও এতিম খানার নামে ১০টি দোকান ঘর বরাদ্ধ নিয়ে ব্যবসা করে আসছিল। নতুন করে তাদের বরাদ্দ না দিয়ে গত সপ্তাহে মাইকিং করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দোকানগুলো বুল ড্রেজার দিয়ে ভেঙ্গে দেয়।

ক্ষতিগ্রস্থ্য ব্যবসায়ীরা তড়িঘড়ি করে মালামাল কোন রকমে সড়িয়ে নেয়। এরপর দিন রাতারাতি সমস্ত জায়গাটিতে বালু দিয়ে ভরাট করে দোকান ঘর বরাদ্দ জন্য প্রকৃত ব্যবসায়ীদের কাছ হতে আবেদন গ্রহন করে। প্রশাসনের ডাকে সাড়া দিয়ে প্রায় ৫ হাজারের উপরে ব্যবসায়ীরা আবেদন করেন।

গত বুধবার দিনভর প্রশাসনের পক্ষ হতে ৮১ জনের নামে দোকান বরাদ্দ দিয়ে পজিশন বুঝিয়ে দেন এসিল্যান্ড। দোকান বরাদ্দ প্রকৃত ব্যবসায়ীদের না দিয়ে তাদের মনোনীত ব্যক্তিদের গোপনে বরাদ্দ দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে ব্যবসায়ীরা। গত বৃহস্পতিবার সকালে বরাদ্দ পাওয়া ঐসব ব্যবসায়ীরা দোকান ঘর তুলতে গেলে হাজারো ব্যবসায়ীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

এক পর্যায় তারা এসিল্যান্ডের বিরুদ্ধে অর্থ বানিজ্যর অভিযোগ এনে তার অপসারনের দাবিতে মিছিল দিয়ে এসিল্যান্ড অফিস ঘেরাও করে। বিষয়টি জেলা প্রশাসক অতুল সরকারের দপ্তরে পৌছালে তার নির্দেশনায় ডিডিএলজি এস,এম মনিরুজ্জামান বৃহস্পতিবার দুপুরে এসে বরাদ্দকৃত দোকান ঘর উত্তোলনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

ডিসেম্বর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« নভেম্বর  
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।