• ঢাকা
  • বুধবার, ৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
জেনে নিন ডায়েট বাঁচিয়ে আলুর কিছু সুস্বাদু রেসিপি

২৯ জুন ২০২০ সোমবার

ডায়েট করতে তো সবাই চায়। সবাই চায় সুস্বাস্থের অধিকারী হতে। মোটা শরীর নিয়ে অনেকেই হতাশায় ভুগতে থাকে। কর্মক্ষেত্রে হোক বা দৈনন্দিন জীবন, সব ক্ষেত্রেই স্থূল শরীর প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করে। রাস্তা ঘাটে চলা ফেরা হোক বা পছন্দ মত ড্রেস কেনা, সব ক্ষেত্রেই স্থূলকায় শরীরে সমস্যা। এমনকি চিকিৎসকরা বলছেন যে স্থূল শরীরে রোগ বেশি হতে পারে। এর জন্যে সবাই বেছে নেন ডায়েট। এই ডায়েটের চক্করে অনেকেই খাওয়া দাওয়া কমিয়ে দেন জলদি রোগা হতে চেয়ে।

যা যে কারুর জন্যে ক্ষতিকারক। বিধি নিষেধ মানতে গিয়ে অনেক খাবারের উপরেই নিষেধাজ্ঞা চলে আসে। এর মধ্যে অন্যতম আলু। হ্যা, সত্যি যেকোনো ক্ষেত্রেই কেউ রোগা হবার জন্যে চেষ্টা করছেন তো সবাই ফ্যাট জাতীয় খাবার খেতে বারণ করার পাশাপাশি আলু খেতে বারণ করবে। এর কারণ হলো আলু তে থাকে স্টার্চ বা শর্করা। যা অতিরিক্ত পরিমানে শরীরে গেলে তা আমাদের শরীরে জমতে থাকে। আস্তে আস্তে শর্করা শরীরে জমে ফ্যাট বাড়তে থাকে যা আমাদের শরীর স্থূল করার প্রধান কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

কিন্তু নতুন চিকিৎসা বিজ্ঞান এখন বলছে যে আলু খেলেই যে মোটা হয় তা না। ম্যাকগিল ইউনিভার্সিটি একটা পরীক্ষা করে দুটো ইঁদুরের উপর যেখানে একটা ইঁদুরকে ফ্যাট খেতে দেওয়া হয় এবং আর একটা ইঁদুরকে ফ্যাটের সাথে আলুর সারাংশ দেওয়া হয়। দেখা গেছে যে দ্বিতীয় ইঁদুরের স্থূল হওয়ার হার অনেক কম। বিজ্ঞানীরা এক্ষেত্রে আলুর মধ্যে থাকা পলিফেনল কে দায়ী করছেন।

তাই ডায়েট করতে হলেই যে ডায়েট চার্ট থেকে আলু কে বাদ দিতে হবে তা নয়। আলুপ্রেমিরা নিজেদের ডায়েটে আলুকে রাখতে পারেন। যারা যেকোনো রান্না বলতে আলু কে সব থেকে বেশি প্রাধান্য দেন তারাও একটা নিদ্রিষ্ট পরিমাণে আলু কে নিজের ভালোবাসা দেখাতেই পারেন।

আজকের প্রতিবেদনে সেরকম কিছু রেসিপি বা বলা ভালো আইডিয়া দেওয়ার চেষ্টা করা হলো যার মুখ্য ভূমিকায় আলু। অনেক তেল ব্যবহার না করেও যে আলুর সুস্বাদু নানান পদ তৈরি করা যায় মূলত তা জানাতেই এই প্রতিবেদন।

১. সিদ্ধ করে ভেজে নিন

একটা পাত্রে কিছু আলু ভালো করে সিদ্ধ করে নিন। অন্য একটা পাত্রে অল্প তেলে একটা পেঁয়াজ কুচিয়ে দিন, সাথে অল্প কালো জিরে, টমেটো কুচি, এবং অন্যান্য সবজি যদি দিতে চান দিয়ে ভাজুন। হালকা ভাজা হলে সিদ্ধ আলু দিয়ে ভালো করে মাখান কড়াই তেই। চাইলে অল্প গোলমরিচ গুঁড়ো দিয়ে টমেটো সস দিয়ে খেতে পারেন রুটির সাথে।

২.সিদ্ধ করে রোল

উপরের মত করেই আলুর পুর বানিয়ে নিন। রুটির মধ্যে ডিম ভেজে লাগিয়ে পুর হিসাবে রোল এর মত করে বানিয়ে খান। খেতেও ভালো আর অনেক্ষন পেট ভর্তি থাকে। এটা খেতে ফাস্ট ফুডের মত হলেও পুষ্টিগুণ অনেক। সাথে যেসব বাচ্চারা সবজি খেতে চায়না তাদের মায়েদের জন্যে এটা একটা মুশকিল আসান।

৩.আলুর ডেভিল

সন্ধেবেলা টিফিনের সময় অনেক বায়না থাকে। ঘরের অনেকেই রোজ বুঝে উঠতে পারেন না যে কি খেতে দেবেন যা খেতেও মুখরোচক আবার স্বাস্থ্যের জন্যে ভালো। ওই একই পুর দিয়ে হালকা বেসন বা চালের গুঁড়ো দিয়ে পাকোড়া ভেজে খেতে পারেন।

৪. ডিম ভুজিয়া দিয়ে

স্ক্রামব্লড এগ অনেকেই খেতে ভালোবাসেন। এর সাথে আলুর পুর যেমন ভালোলাগে খেতে একই ভেবে আলু এয়ার ফ্রাইয়ে ভেজে নিলে তেল অল্প লাগে আর খেতেও সুস্বাদু।

৫. গ্রিন স্যালাড দিয়ে

স্যালাড হিসাবে আলু বেছে নিতে পারেন। সকাল বেলার স্বাস্থ্যকর ব্রেকফাস্টে আলু শশা কাচা ছোলা ডায়েট বাঁচিয়ে খাওয়ার জন্যে ভালো।

৬.বেকড আলূ

গোল গোল করে আলু কেটে নিয়ে তাতে মধু গোলমরিচ গুঁড়ো লেবুর রস দিয়ে মাইক্রোওয়েভে বেক করে নিন। মুচমুচে আর খেতেও টেস্টি।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

সেপ্টেম্বর ২০২১
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« আগষ্ট  
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০