• ঢাকা
  • রবিবার, ১৬ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৯শে জানুয়ারি, ২০২৩ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
কমদামে ব্যাংকের শেয়ার

বিশ্বাস হোক বা না হোক দেশের অনেকগুলো ব্যাংকের শেয়ারদর তলানিতে ঠেকেছে। বলা চলে পানির দামে পাওয়া যাচ্ছে শেয়ার। নানা অনিয়মে জড়িয়ে পড়া পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলো থেকে মানুষের আস্থাও কমছে দিন দিন। ফলে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন বিনিয়োগকারীরা। আর শেয়ারবাজারে থাকা প্রতিষ্ঠানগুলোর অবস্থা খারাপ হতে চলছে দিন দিন।

ব্যাংক খাতের শেয়ার দরের এই দুরাবস্থার ফলে সার্বিক শেয়ার বাজারে নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে বলেও মন্তব্য করেন বিশ্লেষকরা। তাদের দাবি, ব্যাংক খাতে নানা অনিয়মের তথ্য বেরিয়ে এলেও শেয়ারের দাম এতো নিচে যাওয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি। এই অবস্থাকে করুণ দশা বলেও মন্তব্য করেন কেউ কেউ।

এদিকে শেয়ারবাজার ভয়াবহ দরপতনের কবলে পড়লে গত ১৯ মার্চ নতুন সার্কিট ব্রেকার চালু করে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। নতুন এই নিয়মের কারণে শেয়ার দাম নতুন করে আর কমতে পারছে না।

এরপরও তালিকাভুক্ত ৩০টি ব্যাংকের মধ্যে ৮টির শেয়ার দাম ফেস ভ্যালু ১০ টাকার নিচে অবস্থান করছে। আর ৯টি ব্যাংকের শেয়ার দাম ফেস ভ্যালুর কাছাকাছি অবস্থান করছে। শেয়ারের দাম ২০ টাকা বা তার বেশি আছে মাত্র ৯টির

শেয়ারবাজার বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, বর্তমানে সাউথ ইস্ট ব্যাংক, ট্রাস্ট ব্যাংক ও ব্র্যাক ব্যাংকের শেয়ার দাম ফ্লোর প্রাইসে আটকে আছে। এর মধ্যে সাউথ ইস্ট ব্যাংকের শেয়ারের ফ্লোর প্রাইস নির্ধারিত হয় ১১ টাকা ৩০ পয়সা। ২৫ মার্চ লেনদেন শেষেও কোম্পানিটির শেয়ার দাম ১১ টাকা ৩০ পয়সাতেই রয়েছে। এছাড়া ট্রাস্ট ব্যাংকের ২৪ টাকা ৪০ পয়সা এবং ব্র্যাক ব্যাংকের ৩১ টাকা ৯০ পয়সায় আটকে রয়েছে শেয়ার দাম। এই তিন প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম কোনো অবস্থাতেই আর কমতে পারবে না। তবে দাম বাড়ার সুযোগ আছে।

এ বিষয়ে ডিএসইর পরিচালক রকিবুর রহমান বলেন, ব্যাংকগুলো একের পর এক বোনাস শেয়ার দিয়ে পরিশোধিত মূলধন ও শেয়ার বাড়িয়েছে। সেই শেয়ার তারা বাজারে উচ্চ মূল্যে বিক্রি করেছেন। এখন ব্যাংকের শেয়ার দাম অনেক কমে গেছে। পরিচালকদের উচিত এখন কম দামে বাজার থেকে নিজ কিনে নেওয়া। তাহলে বাজার পরিস্থিতিতে খানিকটা স্থিতিশীল হবে।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

জানুয়ারি ২০২৩
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« ডিসেম্বর  
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।