• ঢাকা
  • শনিবার, ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে জুন, ২০২৪ ইং
ভাঙ্গায় স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা। ইউপি চেয়ারম্যান পুত্র সহ আটক -৩

মোঃ রমজান সিকদার,ভাঙ্গা (ফরিদপুর) সংবাদদাতা -০১/০৬/২০২৪

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা অভিযোগ চান্দ্রা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খালেক মোল্লার পুত্রসহ তিনজনকে আটক করেছে ভাঙ্গা থানা পুলিশ। শুক্রবার রাতে ঘটনা স্থল থেকে চেয়ারম্যান পুত্রকে ও শনিবার সকালে আরো ২ আসামীকে আটক করে দুপুরে তাদের ৩ জনকে জেল হাজতে প্রেরন করেছে।

আটককৃতরা হল, চান্দা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক মোল্লার পুত্র পাচকুল গ্রামের সাইফুর রহমান সুজন (২৫), গোয়ালদী গ্রামের আবুতালেব মিয়ার পুত্র মুন্নামুন্সি (২০) ও হাসামদিয়া গ্রামের মুন্ন মুন্সির পুত্র তাহসিন মুন্সী (২২)।

এব্যাপারে শনিবার দুপুরে ঐ স্কুল ছাত্রীর মা ভাঙ্গা থানার  একটি মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়,  শিবচরের এক স্কুল ছাত্রী (সাদিয়া আক্তার) তার প্রেমিক  ইউনুচ সরদারকে নিয়ে ভ্যান যোগে ভাঙ্গা বিশ্বরোড গোল চত্বরে ঘুরতে আসে। ঘোরা শেষ করে রাত অনুমানিক ৮টার দিকে বাড়ি ফেরার পথে ভাঙ্গা উপজেলার বামনকান্দা এলাকায় পৌছালে তিন মোটরসাইকেল আরোহী তাদের পথ গতিরোধ করে।  তখন বখাটেরা প্রেমিক ইউনুস সরদার কে ভয়ভীতি দেখিয়ে প্রেমিকাকে সড়কে পাশে পাট ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে।

একই সময়ে ভাঙ্গা থানার একটি টহল পুলিশ ঐ পথ দিয়ে যাওয়ার সময় প্রেমিক ইউনুস সরদার   পুলিশের গাড়ি থামিয়ে ঘটনার বিস্তারিত জানায়। তখন পুলিশ অভিযান চালিয়ে পাটক্ষেত থেকে

ভিকটিমকে ( স্কুল ছাত্রী)  উদ্ধার করে এবং চেয়ারম্যানের পুত্র সাইফুর রহমান সুজনকে আটক করে। এসময়ে পুলিশ উপস্থিতিতে টের পেয়ে আরো দুই আসামী পালিয়ে যায়।

স্কুল ছাত্রীর মা জানান, আমার মেয়ে শিবচর উপজেলার সূর্যনগর টি, এম একাডেমী হাইস্কুলের নবম শ্রেণীর ছাত্রী এবং পাশাপাশি কওমি মাদ্রাসায় লেখাপড়া করে। মাঝে মধ্যে সেলাই প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে সেলাই কাজ শিখে। শুক্রবার

রাতে আমাকে ভাঙ্গা থানা থেকে সংবাদ পাঠায়।  রাত ১১টার সময় ভাঙ্গা থানায় আসি এবং আমার মেয়ের নিকট থেকে ঘটনার বিস্তারিত বিবরন শুনি। এঘটনায় আমি বাদি হয়ে মামলা করছি। পুলিশ আসামিদের গ্রেফতার করে জেলে পাঠিয়েছে। আমি আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাই ।

ভাঙ্গা থানার ওসি মোঃ মামুন আল রশিদ জানান, শিবচর এলাকার থেকে এক স্কুলছাত্রী শুক্রবার বিকেলে ভাঙ্গা গোলচত্বরে ঘুরতে আসছিল। ঘুরা শেষ করে ভ্যান যোগে রাত অনুমানিক সাড়ে ৭টার সময় বাড়ি ফেরার পথে বাবানকান্দা এলাকায় তিন মোটরসাইকেল আরোহী তাদের পথ-গতিরোধ করে মেয়েটি  সড়কের পাশে পাট খেতে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। আমার টহল পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে । ঘটনার সাথে জড়িত এক ইউপি চেয়ারম্যানের পুত্র সাইফুর রহমান সুজনকে আটক করে। শনিবার সকালে ঘটনার সাথে জড়িত আরো দুইজন আসামিকে আটক করতে সক্ষম হই।

এ ঘটনায় মেয়ের মা বাদী হয়ে ভাঙ্গা থানা একটা ধর্ষণের চেষ্টা মামলা করেছে। দুপুরে  ৩ আসামিকে  গ্রেফতার পুর্বক জেল হাজতে প্রেরণ করেছি।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

জুন ২০২৪
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« মে    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।