• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ ইং
ঠাকুরগাঁওয়ে শ্রমিক নেতা কে হেয় প্রতিপন্ন করার অভিযোগ

ঠাকুরগাঁওয়ে শ্রমিক নেতা কে হেয় প্রতিপন্ন করার অভিযোগ

মোঃআসাদুজ্জামান ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ে সুজন আলী নামে এক শ্রমিক নেতা কে হেয় প্রতিপন্ন করার অভিযোগ উঠেছে। তাছাড়া উক্ত শ্রমিক নেতার বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক সহ বিভিন্ন মাধ্যমে তার নামে মিথ্যা অভিযোগ করার ও ছড়ানোর অভিযোগ উঠেছে।

ভুক্তভোগী শ্রমিক নেতার নাম মোঃ সুজন আলী। তিনি জাতীয় শ্রমিক লীগ ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার সহ-সভাপতি ও ট্রাক ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি এছাড়াও তিনি সম্মানিত একজন শ্রমিকনেতা।

অভিযোগে জানা যায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে অসহায় ও দুস্থ মানুষের কাছে ত্রাণ পৌঁছানোর নিমিত্তে গত ২৮.০৩.২০২০ তারিখে ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বারেক উক্ত ওয়ার্ডে একটি তালিকা তৈরি করেন যেখানে অনেক অসহায় ও দুস্থ মানুষ এর নাম বাদ পড়ে৷ এই ঘটনায় শ্রমিক নেতা সুজন আলীর সাথে আবু আব্দুল বারেক এর কথা কাটাকাটি হয়। পরের দিন বিষয়টি জাতীয় শ্রমিক লীগ নেতারা সমাধান করে দেন। পরবর্তীতে উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে শ্রমিক নেতা সুজন আলি কে অন্যায় ভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য ও তার সম্মান ক্ষুন্ন করার জন্য এবং তাকে দলীয় ও সাংগঠনিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করার জন্য একটি কুচক্রী মহল ষড়যন্ত্র শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৩০.০৩.২০২০ ইং তারিখে ঠাকুরগাঁও পৌর শহরের সরকার পাড়ার বাসিন্দা ও ট্রাক ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জয়নুদ্দিন এর ছেলে মোঃ রিপন শ্রমিক নেতা সুজন আলী কে নিয়ে উক্ত ঘটনায় মিথ্যা ভিত্তিহীন ও অসত্য তথ্য ফেসবুকে প্রচার করে। এরপর ক্ষান্ত না হয়ে সুজন আলী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করেছেন এবং দলীয়ভাবে বাজে কথা বলেছেন বলেছেন এমন অভিযোগ এনে ফেসবুকে লেখালেখি করেন এবং তা ভাইরাল করে শ্রমিক নেতা সুজন আলী সম্মান ক্ষুন্ন করেন। এই ঘটনার প্রতিবাদে শ্রমিক নেতা সুজন আলী সদর থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠন কে উক্ত বিষয়ে অভিযোগ করে এই ঘটনায় অভিযুক্ত রিপনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

এ বিষয়ে শ্রমিক নেতা সুজন আলী জানান, বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক। আমাকে দলীয় সাংগঠনিক ও সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতে এবং আমার সম্মান নষ্ট করতে রিপন আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও অসত্য তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করে। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এ বিষয়ে প্রতিকারের জন্য আমি সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছি। উক্ত ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও রিপনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত রিপন কে মুঠোফোনে বেশ কয়েকবার ফোন করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে ট্রাক ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জয়নুদ্দিন জানান, সুজন আলি এর বিষয়টি আমি শুনেছি। তবে রিপনের বিরুদ্ধে এ অভিযোগের বিষয়টি জানিনা। আমার ছেলে সুজন আলীর বিরুদ্ধে কি লেখালেখি করেছে তাও জানিনা। বিষয়টি ভালোভাবে জেনে আমার ছেলের দোষ থাকলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান শ্রমিক নেতা।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

নভেম্বর ২০২০
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« অক্টোবর  
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।