• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ইং
পটুয়াখালীতে ভ্রাম্যমান আদালতে ০৬ জন দোকানদারকে অর্থদন্ড

র‍্যাব-৮, সিপিসি-১, (পটুয়াখালী ক্যাম্প) ও জেলা প্রশাসন, পটুয়াখালী এর যৌথ উদ্যোগে অদ্য ২৬/০৪/২০২০ইং তারিখ সকাল আনুমানিক ০৯.০০ ঘটিকা হতে ১২.০০ ঘটিকা পর্যন্ত পটুয়াখালী পুরান বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে দোকান খোলা রাখায় ০৬ জন দোকানদারকে সর্বমোট ৬,০০০/- টাকা জরিমানা করা হয়। ১। মোঃ সাইদুর রহমান (৩১), পিতা- মুজবুর রহমান, সাং-পুরান বাজার, থানা- সদর, জেলা- পটুয়াখালী, ২। কাইয়ুম হাওলাদার (২১), পিতা- কামাল হাওলাদার, সাং- পুরান বাজার, থানা- সদর, জেলা- পটুয়াখালী, ৩। জাকির হোসেন (৩৫), পিতা- মৃত সেকেন্দার আলী হাওলাদার , সাং-আওলিয়াপুর, থানা-সদর, জেলা-পটুয়াখালী, ৪। মোঃ মনির হাওলাদার (৩৫), পিতা- মৃত সেকেন্দার আলী হাওলাদার, সাং-আওলিয়াপুর, থানা- সদর, জেলা- পটুয়াখালী, ৫। আব্দুর রহমান (৬৮), পিতা-মোহাম্মদ আলী ঘরামী, সাং-লোহালিয়া, থানা- সদর, জেলা-পটুয়াখালী এর কাপড়েরর দোকানদার প্রত্যেককে ১,০০০/- টাকা করে সর্বমোট ৫,০০০/- টাকা জরিমানা করা হয়। অন্যদিকে জুতার দোকানের মালিক ১। নিপু বনিক (৪০), পিতা- মৃত- রবীন বনিক, সাং- আওলিয়াপুর, থানা-সদর, জেলা- পটুয়াখালীকে ১,০০০/- টাকা সহ সর্বমোট ৬,০০০/- টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অমিত রায়, সহকারী কমিশনার, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, পটুয়াখালী, সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মুল আইন, ২০১৮ এর ২৫(খ) ধারা মোতাবেক অর্থদন্ড প্রদান করেন। উল্লেখ্য, রমজানের নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য মূল্যের বাজার স্বাভাবিক রাখতে ও সাম্প্রতিক সময়ের মহামারি করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে জনসমাগম এড়ানো ও হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সরকার নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য, মুদি দোকান ও ফার্মেসী ব্যতীত অন্যান্য সকল দোকান পাট বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশনা প্রদান করলেও কিছু কিছু দোকান মালিক এই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে চলছে বিধায় এই অভিযান পরিচালনা করা হয় বলে জানিয়েছেন পটুয়াখালী ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার,মোঃ রইছ উদ্দিন।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

ফেব্রুয়ারি ২০২৪
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« জানুয়ারি    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯  
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।