• ঢাকা
  • সোমবার, ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জুলাই, ২০২৪ ইং
শুধু ইলিশ উৎপাদন অর্থ দিয়েই সোনার বাংলা গড়া সম্ভব’ -নিক্সন চৌধুরী

চরভদ্রাসন (ফরিদপুর) প্রতিনিধি
ফরিদপুর-৪ আসনের এমপি ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন বলেছেন, ‘প্রতি বছর জাটকা বা শুধু ইলিশ সম্পদটুকু সঠিকভাবে রক্ষা করতে পারলে এবং তা সুষ্ঠভাবে আহড়ণ করতে পারলে রপ্তানী বাণিজ্যর মাধ্যমে যে বৈদেশিক অর্থ পাওয়া যাবে তা দিয়েই সোনার বাংলা গড়া সম্ভব। তিনি বলেন, সাড়া বছর নদী জুড়ে ইলিশ সম্পদের উপর যে ধ্বংস যজ্ঞ চালানো হয় তারপরও দেশে ইলিশ মাছ রপ্তানী আয় আসছে বছরে প্রায় ২৮ হাজার কোটি টাকা। এই বিপুল পরিমান অর্থ দিয়ে আমরা পদ্মা সেতুর মত বছর বছর একটি করে মেগা প্রকল্প দেশে বাস্তবায়ন করতে পারবো।
তিনি বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ ইলিশ মাছের স্বাদ আর পরিচিতি নিয়েই একবাক্যে বাংলাদেশকে বুঝার চেষ্টা করে থাকেন। আমরা যদি এই ইলিশ সম্পদের উপর যতœশীল হই তাহলে আরও অধিক হারে বৈদেশিক আয় অর্জন করা যাবে। তাই এ ইলিশ মাছ দিয়েই দেশের ভাগ্যের চাকা পাল্টিয়ে দেওয়া এখন শুধু সময়ের ব্যাপার বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
শনিবার দুপুরে ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা প্রশাসন ও মৎস্য দপ্তরের উদ্যোগে আয়োজিত জাটকা সংরক্ষন সপ্তাহ-২০২৩ খ্রি. এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নিক্সন চৌধুরী এসব কথা বলেন। এ জাটকা সংরক্ষন সপ্তাহর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা জজ বিপুল চন্দ্র দাস। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফরিদপুর-৪ আসনের এমপি মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন। ফরিদপুর পুলিশ সুপার মোঃ শাহজাহান (বিপিএম সেবা), জেলা মৎস্য কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার সরকার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানজিলা কবির ত্রপা ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ কাউছার সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।
প্রধান অতিথি আরও বলেন, নদীর দশ ইঞ্চি নিচের ছোট ইলিশ বা জাটকা মাত্র এক বছর রক্ষা করতে পারলেই আমরা ঘরে তুলতে পারছি জলজ সোনা। যে ইলিশ বিদেশীদের কাছে আমরা হাজার হাজার টাকা কেজি দরে বিক্রি করতে পারছি এবং দেশের অর্থনীতির চাকা চাঙ্গা করতে পারছি। তাই তিনি বলেন, দেশের এই সম্পদ বাজারে যিনি বিক্রি করেন তার উপর যেমন মোবাইল কোর্ট করা হয় আর যিনি জাটকা ক্রয় করেন তিনি সমান অপরাধী বলে প্রধান অতিথি তাদেরও আইনের আওতায় এনে শান্তি প্রদানের অনুরোধ করেন।
প্রধান অতিথি আরও বলেন, অত্র উপজেলা পদ্মা নদীর তলদেশ দিয়ে সাব-মেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে ১৮ কি.মি. আয়তনের চরাঞ্চল এলাকার বসবাসকারী পরিবারগুলোর মধ্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ ও ৬২০ কোটি টাকা ব্যায়ে পদ্মা নদীর তীর সংরক্ষন স্থায়ী বাঁধ নির্মান অত্র উপজেলাবাসীর জন্য এক স্বপ্নিল উন্নয়ন। তিনি বলেন, এসবই সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আছেন বলে। তাই এসব উন্নয়ন পেয়ে উপজেলার প্রতিটি জনগণের উচিত দেশের সম্পদ ইলিশ রক্ষা করা এবং তা সম্প্রসারনের প্রতি যতœশীল হওয়ার জন্য উপজেলার প্রত্যেককে উদাত্ত আহবান জানান নিক্সন চৌধুরী।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

জুলাই ২০২৪
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« জুন    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।