• ঢাকা
  • সোমবার, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরামের কথিত সভাপতি মোঃ রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে থানায় জিডি

এস এম মনিরুজ্জামান, ফরিদপুর :-

ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরামের কথিত সভাপতি মোঃ রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে থানায় জিডি করেছে।

মোবাইলে মানহানীকর গালিগালাজ ও নানা ধরনের হুমকি প্রদান করায় ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিকের বিরুদ্ধে থানায় জিডি করেছেন ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরামের কার্য নির্বাহী সদস্য মোস্তফা আমীর ফয়সাল ।

জিডির বরাদ দিয়ে জানা যায় ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি অতি সম্প্রতি সভাপতি হিসেবে বিভিন্ন বিতর্কিত কর্মকান্ডে যুক্ত হওযায় কার্য নির্বাহী সদস্য মোস্তফা আমীর ফয়সালসহ কয়েকজন সদস্য প্রতিবাদ করায় সভাপতি ক্ষুব্ধ হয়ে বিভিন্ন সময় বিশ্রী ভাষায় উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে গালিগালাজ ও হুমকি-ধামকি দেয়া অব্যাহত রাখে( হুমকি ধামকির কথোপকথনের অডিও ক্লিপ তাহার কাছে রয়েছে)।

এছাড়াও ফয়সালকে মামলা দিয়ে ভবিষ্যৎ ক্যারিয়ার ধ্বংস করে দেয়া হবে বলে ভয় দেখায়। তাই সে নিজের নিরাপত্তা চেয়ে রবিবার সন্ধায় ফরিদপুর কোতয়ালী থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেছেন।

এবিষয়ে রফিকের বক্তব্য নিতে তার এই ০১৭১৫৬৭২৪১৯ নাম্বারে ফোন করলে তিনি ফোনটি কেটে দেন। ফয়সাল আরো জানান, মানিকগঞ্জ নিবাসী জৈনক রফিকুল ইসলাম বেশ কিছুদিন আগে ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” নামে একটি ফেসবুক গ্রুপ খোলেন। তিনি সেখানে ফরিদপুরের উন্নয়নের জন্য কয়েকটি যৌক্তিক বিষয়কে দাবি আকারে উপস্থাপন করে ফরিদপুর বাসির দৃষ্টি আকর্ষন করেন।

সম্প্রতি তিনি উক্ত ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” এর নামে তার নিজ ব্যক্তি স্বার্থ চারিতার্থ করার জন্য বিভিন্ন অপকৌশল অবলম্বন করেন। কয়েকদিন আগে তিনি নিজেকে ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” এর সভাপতি হিসাবে ঘোষনা দিয়ে ফরিদপুরবাসির প্রানের দাবিগুলোকে পুঁজি করে প্রেস ক্লাবের সামনে একটি মানব বন্ধন করেন। সেখানে সুকৌশলে ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” এর বিভিন্ন পদের পরিচয়ে আমাদেরকে পরিচিতি করে তিনি তার ব্যক্তি ইমেজকে সমাজের সামনে তুলে ধরার অপপ্রয়াস চালান। তিনি ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” এর লোগো ব্যবহার করে এবং নিজেকে সভাপতি পরিচয়ে বড় আকারে নিজের ছবি সম্বলিত ফেস্টুন ও পোষ্টার তৈরি করে ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” এর আড়ালে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করায় হীনচেষ্টায় ব্যস্ত হয়ে পরেন এবং সমাজের বিভিন্ন ব্যক্তি ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে অনুদান সংগ্রহের নামে চাঁদা তোলার ফন্দি আটেন।

তিনি ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” এর কোন সাংগঠনিক কাঠামোর নীতিগত বৈধতার দিকে অগ্রসর না হয়ে তার একান্ত নিজ ইচ্ছায় যাকে খুশি তাকে পদ পদবী দিচ্ছেন আবার যখন তখন তা কেড়ে নিচ্ছেন। ফরিদপুর এর বেশ কিছু সম্মানীত মহিলাগনকে শহরের বিভিন্ন ফাষ্ট ফুডের দোকানে আপ্যায়নে আমন্ত্রণ করে ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” এর বিভিন্ন পদ পদবী দিচ্ছেন এবং সেগুলো তার ফেসবুক পেজে এবং ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম”এর গ্রুপে আপলোড দিচ্ছেন।
সৌভাগ্য যে, আমরা স্বল্পতম সময়ের মধ্যে তার এধরনের অপকৌশল এবং দুরভীসন্ধিমূলক অপতৎপরতা বুঝতে পেরে তাকে এসব কাজ থেকে বিরত থাকার জন্য সৎপরামর্শ দেই।

এতে করে তিনি ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” নামের ফেসবুক গ্রুপে আমাদেরকে ব্লক করেন। এ বিষয়ে মোবাইল ফোনে তার সাথে আলাপ কালে তিনি অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ বিভিন্ন ধরনের হুমকি প্রদান করেন এবং নিজেকে ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” একাধারে সভাপতি, একাধারে সাধারন সম্পাদক, একাধারে সাংগঠনিক সম্পাদক, একাধারে সদস্য অর্থাৎ সব পদের অধিকারি বলে দাবি করেন। তিনি নিজের ইমেজ প্রতিষ্ঠিত করা এবং ইমেজ বৃদ্ধির জন্য ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” সৃষ্টি করেছেন বলেও দাবি করেন। ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” একান্ত তার নিজের সংগঠন, এটা তিনি সৃষ্টি করেছেন বলে দাবি করেন।

তিনি ফরিদপুরের ডিসি/এসপি মহোদয়ের সাথে উঠাবসা করেন, সুতরাং কেউ তার কিছুই করার ক্ষমতা রাখে না বলে দাবি করেন। তার এসব বক্তব্যের অডিও ভয়েস প্রমান হিসাবে আপনাদের হোয়াটসআপ/ম্যাসেঞ্জারে সরবরাহ করা হচ্ছে। অতি সম্প্রতি তিনি আগামী ৬ ফেব্রুয়ারী ঈমাম স্কোয়ারে(জনতা ব্যাংকের মোড়ে) একটি পথসভা করার অনুমতি প্রার্থনা করে জেলা প্রশাসক মহোদয় বরাবরে পত্র দাখিল করেন।

উক্ত পত্রের রিসিপ কপি তার নিজের ফেসবুক পেজে এবং ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” এর পেজে আপলোড দিয়ে কৌশলে ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” এর সরকারী বৈধতা প্রতিষ্ঠিত করার কুটকৌশল অবলম্বন করে জেলা প্রশাসক মহোদয়ের সাথে প্রতারনার আশ্রয় নিয়েছেন।

শুধু তাই নয়, উক্ত পথ সভার অনুমতি ও নিরাপত্তা চেয়ে এসপি মহোদয়, কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, উপ-জেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রমূখ এর কাছে উক্ত আবেদন এর অনুলিপি প্রদান করেছেন।
তিনি এখানেই থেমে থাকেননি। গনপ্রজতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধান মন্ত্রী বরাবরে উক্ত পথ সভার নিরাপত্তার জন্য ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” এর প্যাডে সভাপতি সীল মোহর ব্যবহার করে আর একটি আবেদন করেছেন এবং সেই আবেদন তার নিজ ফেজবুক পেজে আপলোড দিয়ে অসৎ উদ্দেশ্যে নিজেকে সমাজের অতি গুরুত্বপূর্ন ব্যক্তি হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করার অপচেষ্টা করছেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবরে এরূপ আবেদন করে তিনি সুকৌশলে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক মহোদয় ও এসপি মহোদয়কে খাটো করার অপচেষ্টা করেছেন। তিনি ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক মহোদয় ও এসপি মহোদয়কে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর কাছে ফরিদপুরের সামান্য একটি পথ সভার নিরাপত্তা বিধানে ব্যর্থতার চিত্র তুলে ধরতে চেয়েছেন। এটা কিসের ইঙ্গিত তা বোধগম্য নয়। তার সাথে কোন রাষ্ট্রবিরোধী চক্রের যোগসাজস আছে কিনা তা খতিয়ে দেখার জন্য আহ্বান করছি।

এ বিষয়ে ফরিদপুর বারের সিনিয়র আইনজীবী শিপ্রা গোস্বামী ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” এর পেজে ভদ্রচিত সালিন মন্তব্য করেছেন ‘‘ এ ক্ষুদ্র বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত যেতে হলো কেন ? ফরিদপুরের পুলিশ প্রশাসন কি ব্যর্থ ?” এর জবাবে লাইভে এসে রফিকুল ইসলাম সিনিয়র আইনজীবী শিপ্রা গোস্বামীর মান সম্মান ক্ষুন্ন করে ‘‘ফরিদপুর নাগরিক মঞ্চ” কে নিয়ে তাচ্ছিল্যসহকারে মন্তব্য করেন।

ফরিদপুর বাসির মান মর্যাদা নিয়ে ‘‘ফরিদপুর উন্নয়ন ফোরাম” এর ব্যনারে একজন মানিকগঞ্জবাসির এত আবেগ এর পিছনে অন্য কিছু লুকিয়ে আছে কিনা এটা খুঁজে বের করার দায়িত্ব আপনাদের।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

ডিসেম্বর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« নভেম্বর  
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।