• ঢাকা
  • রবিবার, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জুন, ২০২১ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
ফরিদপুর জেলা যুবলীগের ন্যায্য মুল্যে পণ্য বিক্রয় সর্ব মহলে প্রশংসিত

ফরিদপুর জেলা যুবলীগের ন্যায্য মুল্যে পণ্য বিক্রয় সর্ব মহলে প্রশংসিত

জিল্লুর রহমান রাসেল, ফরিদপুর :   
করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ফরিদপুরে কর্মহীন হয়ে পরা অসহায় মানুষ বিশেষ করে মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্তদের জন্য গত ০৫-০৪-২০ হতে মাইকিং করে কম মূল্যে নিত্য পণ্য বিক্রি শুরু করেছে জেলা যুবলীগ। মুজিব শতবর্ষ পালন উপলক্ষে বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালা আয়োজনের জন্য কর্মীদের নিকট হতে সংগ্রহ করা টাকায় এসব পণ্য পাইকারী দরে কিনে বিক্রি করা হচ্ছে।
শহরের ২৭টি ওয়ার্ডে ট্রাকযোগে বিভিন্ন পণ্য নিয়ে যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগের কর্মীরা বাজার মূল্যের চেয়ে ২০ থেকে ৩০ শতাংশ কম মূল্যে এসব পণ্য বিক্রি করছে। প্রতিটি ওয়ার্ডে ৩টি করে ট্রাক মানুষের ঘরের সামনে গিয়ে মানুষের কাছে নিয়ে যাচ্ছে এসব পণ্য। যদিও মাস্ক পরিহিত ছাড়া কারো কাছে তারা এসব পণ্য বিক্রি করছে না। আর একজনের কাছে নির্দিষ্ট পরিমাণেই বিক্রি করা হচ্ছে এসব পণ্য।
এর মধ্যে প্রতি কেজি চিকন চাল বিক্রি করা হচ্ছে ৩৮ টাকা দরে। ডাল প্রতি কেজি বিক্রি করছে ৭৩ টাকা দরে। সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ৯৮ টাকা দরে। আলু ১৯ টাকা দরে। পেঁয়াজ ৩২ টাকা দরে। লবন ১৫ টাকা দরে। ডিম প্রতি হালি ২৪ টাকা। আটা ৩০ টাকা কেজি দরে।
শহরের পুর্বখাবাসপুর তালতলা এলাকার একজন ক্রেতা জানালেন, তিনি সকাল ১০টার দিকে বাড়ি হতে বের হন বাজারের উদ্দেশ্যে। বেরিয়ে রাস্তার মোড়ে দেখেন একটি ট্রাকে মাইকিং করে বিভিন্ন পণ্য বিক্রির কথা বলছে। ওই ট্রাকে এমপি মোশাররফ হোসেনের ছবি সহ যুবলীগের ব্যানার লাগানো ছিলো। তিনি বলেন, বাজার দরের চেয়ে অনেক কম দামে এখানে নিত্য পণ্য বিক্রি করা হচ্ছে। এছাড়া বাজার হতে এসব পণ্য পায়ে হেটে আনতে অনেক কষ্ট হতো। আর রিকশাও পাওয়া যেতো কিনা সন্দেহ।
শহরের বিভিন্ন মহল্লায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তুলনামুলক কম মূল্যে এসব পণ্য কিনতে পেরে সাধারণ মানুষ অনেকটাই স্বস্তি পাচ্ছে। অনেক মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্ত যারা মানুষের দ্বারে হাত পাততে অভ্যস্ত নন। আবার উচ্চ মূল্যের কারণেও সমস্যায় পরছিল অনেকে। তাদের জন্য অনেক সুবিধা হয়েছে। এতে তাদের দুর্ভোগ অনেকটাই কমেছে। নিত্য পণ্য বিশেষ করে চাল, ডাল, তেল, আটার জন্য তাদেরকে বাজার হতে পণ্য কিনে আনতে বেগ পেতে হচ্ছে না। সাধারণ মানুষ যুবলীগের এই উদ্যোগকে অসাধারণ মহতি উদ্যোগ হিসেবে বর্ণনা করেছে।
ভ্রাম্যমান বাজারের কাজে নিয়োজিত শহর যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান ডেভিড জানান, আমরা চেষ্টা করছি যারা সরকারি ত্রাণ বা অন্যদের খাদ্য সহায়তা হাত পেতে নিতে পারে না তাদের দোরগোড়ায় স্বল্প মূল্যে প্রয়োজনীয় বাজার পৌছে দিতে।
এ বিষয়ে ফরিদপুর জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক এএইচএম ফোয়াদ বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী পালন উপলক্ষে যুবলীগের নেতাকর্মীরা নিজেদের নিকট হতে চাঁদা দিয়ে একটি তহবিল করেছিলো। এখন করোনা পরিস্থিতির কারণে যেহেতু সেই অনুষ্ঠান হচ্ছে না তাই আমরা সেই টাকা দিয়েই স্বল্প মুল্যে মানুষের দোড়গোড়ায় এসব পণ্য বিক্রির উদ্যোগ নিয়েছি। এটি কোন ব্যবসাকেন্দ্রিক চিন্তা ভাবনা নয়। আওয়ামীলীগ ও এর সহযোগী সংগঠন সব সময় মানুষের পাশে ছিল, আছে এবং থাকবে। এই দুর্যোগেও তার ব্যতিক্রম ঘটবে না। সাধারণ মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত পরিবারগুলো যাতে এই দুর্যোগে কোন প্রকার দুর্ভোগ না পোহাতে হয় সে লক্ষেই আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা। বাজার মুল্যের থেকে কম মুল্যে পণ্য বিক্রি করায় যে ভর্তুকি যাচ্ছে তা যুবলীগের নেতা কর্মীরা তাদের তরফ থেকে অর্থ সহযোগিতা দিয়ে তা পুরন করছে।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

জুন ২০২১
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« মে  
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০