• ঢাকা
  • সোমবার, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
সংবাদের তথ্য মিথ্য, ভিত্তিহীন ও বানোয়াট দাবী করে দিনাজপুরে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত

শিমুল, দিনাজপুর প্রতিনিধি :

তালাক করিয়ে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে শিরোনামে স্থানীয় সাপ্তাহিক পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ করেছে তালাক প্রাপ্তা রাবেয়া খাতুন।

স্থানীয় সাপ্তাহিক আওয়ামী কন্ঠের ১৭ তারিখে প্রকাশিত উল্লেখিত সংবাদের তথ্য মিথ্য ও ভিত্তিহীন দাবী করে ২৩ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলেন করেন শহরের ম্যাধ্যাপাড়া নিবাসী মো: আব্দুর রাজ্জাকের কন্যা রাবেয়া খাতুন। লিখিত বক্তব্য পাঠ করে রাবেয়া খাতুন বলেন,সম্প্রতি সদর উপজেলার খানপুর খুদিপাড়ার আনোয়ার হোসেনের পুত্র সবুজ আহম্মেদকে ভালোবেসে উভয়ের সম্মতিক্রমে ১০ লাখ টাকা দেন মোহরানায় বিবাহ করেন। পরে এই বিয়ে উভয় পরিবারের কেউই মেনে নেয়নি,পরবতর্ীতে ২০/১২/২০ তারিখে পুনরায় উভয় পরিবারের সম্মতিক্রমে পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের নিকাহ্ রেজিষ্টার কাজী মো: আব্দুল করিমের মাধ্যমে ৫লাখ টাকা দেন মোহরানায় আবারো আমাদের বিবাহ সম্পন্ন হয়। এসময় উবয় পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলো। মাত্র ৩ দিন সংসার করার পরেই আবারো অশান্তি শুরু হয়। শশুড়,শাশুড়ির কানমন্ত্রে স্বামী সবুজ আহম্মেদ আমাকে গ্রহন করতে অস্বীকার করে।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়েছে, স্বামী, শশুড় ও শাশুড়ির এমন ব্যবহারে হতভম্ব হয়ে বিচারের আশায় ৯ নং আস্করপুর ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান জিয়ার কাছে বিচার চাইলে সে সমাধান করে দেবে মম্র্মে ১ লাখ টাকা দাবী করেন। পরে সাবেক চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেনের কাছে গেলে তিনি ২৩/১২/২০ তারিয়ে উভয় পক্ষের অভিভাবক ও স্বাক্ষীগনের উপস্থিতিতে শালিশ বৈঠক করেন। এ বৈঠকে স্বামী সবুজ স্ত্রী রাবেয়ার সাথে সংসার করবে না মম্র্মে লিখিত স্বীকারোক্তি দেন।

পরে সর্বসম্মতিক্রমে স্বামী সবুজকে দেনমোহর ও খোরপোষ হিসেবে ৫ লাখ টাকায় রেজিষ্ট্রি তালাক নামায় স্বাক্ষর করেন। এব্যাপারে গত ১৭/১/২১তারিখে ৬ নং আউলিয়াপুর ইউপি নিকাহ রেজিষ্টার কাজী মিজানুর রহানের নিকট উপস্থিত হয়ে লিখিত তালাকনামায় উভয়পক্ষ স্বাক্ষর করি। শালিশী বৈঠকের সিদ্ধান্ত মোতাবেক তারা (স্বামী পক্ষ) গত ২৫/১/২১ তারিখে সাবেক চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেনের নিকট ৪ লাখ ৩৫ হাজার টাকা জমা করে। শালিশী বৈঠকের পক্ষ হতে গত ২৮/০১/২১ তারিখে উল্লেখিত পরিমান টাকা শালিশী বৈঠকের প্রধান ও সাবেক চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন আমাদের ৪ লাখ ৩৫ হাজার টাকা বুঝিয়ে দেন এবং ২/২/২১ তারিখে সমস্ত কাগজপত্র বুঝে দেয়া হয়।

সাপ্তাহিক আওয়ামী কন্ঠের উল্লেখিত সংবাদে সবুজ আহম্মেদ ও বর্তমান চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান জিয়ার উক্তি যেভাবে প্রকাশ করা হয়েছে তা পুরোপুরি অসত্য,বানোয়াট এবং মনগড়া। উল্লেখিত সংবাদটি কারো হীন উদ্দ্যোশ্য চরিত্রার্থ করা অপপ্রয়াস বলেই আমার মনে হচ্ছে,আমি তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি সেই সাথে এধরনের রিপোর্ট হতে বির থাকার আহবান রাখছি।

আমার ন্যায় বিচার প্রাপ্তি, বিবাহ বিচ্ছেদ ও মিমাংসার সমস্ত প্রক্রিয়া সাবেক চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করায় আমি এবং আমার পরিবার সন্তষ্ট ও কৃতজ্ঞ। তিনি আমাকে ন্যায় বিচার দেয়ার জন্যে সর্বক্ষেত্রে সততার পরিচয় দিয়েছে। আমি এধরনের মিথ্যা সংবাদ পরিবেশনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করছি।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন রাবেয়া খাতুন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, সাবেক চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন, মো: আকরাম আলী, ফারুক হোসেন, মাজেদুর রহমান, আনোয়ার হোসেন ও শাহনাজ বেগম প্রমুখ।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

ডিসেম্বর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« নভেম্বর  
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।