• ঢাকা
  • শনিবার, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ ইং
ফরিদপুরে কালবৈশাখীর তান্ডবঃ লন্ডভন্ড ২৫ টি বসতবাড়ি, ফসলের ব্যপক ক্ষতি

জিল্লুর রহমান রাসেল, স্টাফ রিপোর্টার : ফরিদপুর সদর উপজেলার গেরদা ইউনিয়নের পশরা গ্রামে কালবৈশাখীর তান্ডবে লন্ডভন্ড হয়েছে ২৫ টি বসতবাড়ি, উপড়ে পড়েছে শতশত গাছপালা, ফসলের ব্যপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে।

এলাকাবাসি জানান, গতকাল রবিবার দুপুর ২ টার দিকে উত্তর পশ্চিম দিক থেকে ধেয়ে আসে কালবৈশাখী ঝড় সংগে শিলা বৃষ্টি। এতে পশরা গ্রামের তাছের সিকদারের বাড়ি হতে শুরু হয়ে ২৫ বাড়ি, ২ টি মুরগীর ফার্ম, বেশ কয়েকটি বৈদ্যুতিক খুটি সহ কয়েকশত গাছ উপড়ে যায় এবং এই এলাকার ক্ষেতগুলোর সমস্ত ফসলাদি বিনষ্ট হয়।
মরগীর ফার্মের মালিক জাহিদ সরদার বলেন, আমি ১০ লক্ষ টাকা ঋণ সহায়তা নিয়ে এই ফার্মটি দ্বার করেছি। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে মুরগীগুলো বিক্রি করতে পারিনি। গতকাল কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই কালবৈশাখী আমার সবকিছু শেষ করে দিয়েছে। আমি সর্বস্ব হারিয়ে এখন অসহায়। এই ঋণ আমি কিভাবে পরিশোধ করবো তা ভেবে পাচ্ছিনা।
অপর ক্ষতিগ্রস্ত হাফেজা বেগম জানান, আমি সমিতি থাকে ঋণ নিয়ে একটি ঘর করেছিলাম। গতকাল কালবৈশাখীর সময় হঠাৎ একটি গাছ ভেঙে আমার ঘরের উপর পড়ে এতে আমার ঘরটি সম্পুর্ন বিধ্বস্ত হওয়ায় আমার ছেলে ও ১৫ বছরের প্রতিবন্ধি মেয়েকে নিয়ে গাছ তলায় রয়েছি।
ক্ষতিগ্রস্ত সকল পরিবারের সদস্যই বলেন, আমরা সর্বস্ব হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করছি, সরকার যদি আমাদের সাহায্য সহযোগিতা না করে তাহলে আমাদেরকে খোলা আকাশের নিচেই বসবাস করতে হবে।
এসময় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন গেরদা ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আলেয়া বেগম, ২৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি মোঃ জাসদ মিয়া, গেরদা ইউনিয়ন ১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি আঃ লতিফ মোল্লা প্রমুখ।
এ বিষয়ে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আঃ রাজ্জাক মোল্লার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থদের কথা শুনেছি। তাদের বলেছি, সরকারি নিয়ম অনুযায়ী ঘুর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থদের সাহায্য সহযোগিতা করা হবে। এজন্য তাদেরকে ইউএনও বরাবর একটি আবেদন করতে হবে, তিনি প্রয়োজনে জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে তাৎক্ষণিক যে ব্যবস্থা করা সম্ভব তা করবেন।

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

ডিসেম্বর ২০২০
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« নভেম্বর  
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।