• ঢাকা
  • শনিবার, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ ইং
Mujib Borsho
Mujib Borsho
কোন দেশে কতো মানুষকে টিকা দেয়া হয়েছে

ছবি প্রতিকী

করোনাভাইরাসের টিকা দেয়া শুরু হওয়ার পর ইসরায়েলে এখনও পর্যন্ত ১০ লাখের বেশি মানুষকে টিকা দেয়া হয়েছে। সারা বিশ্বে টিকা দেয়ার এটাই সর্বোচ্চ হার।

ইসরায়েলে প্রতি ১০০ জনের মধ্যে ১১.৫৫ জনকে এই টিকা দেয়া হয়েছে। তারপরেই রয়েছে বাহরাইন।

সে দেশে এই হার ৩.৪৯। তৃতীয় স্থানে ব্রিটেন, হার ১.৪৭।
অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সংশ্লিষ্ট একটি ওয়েবসাইট, যারা বিশ্বব্যাপী এর ওপর নজর রাখছে তারা এই পরিসংখ্যান তুলে ধরেছে। যাদের টিকার প্রথম ডোজ দেয়া হয়েছে তাদের এই হিসেবে ধরা হয়েছে।

এখনও পর্যন্ত যেসব টিকা ব্যবহারের অনুমোদন দেয়া হয়েছে এক সপ্তাহেরও বেশি সময়ের ব্যবধানে সেগুলোর দুটো ডোজ দিতে হবে। তারা বলছে, ফ্রান্সে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত মাত্র ১৩৮ জনকে টিকা দেয়া হয়েছে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সারা বিশ্বে ১৮ লাখেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের টার্গেট ছিল ২০২০ সালের মধ্যে দুই কোটি মানুষকে টিকা দেওয়া কিন্তু ৩০শে ডিসেম্বর পর্যন্ত তারা প্রায় ২৮ লাখ মানুষকে টিকা দিতে পেরেছে।

ইসরায়েল কেন এগিয়ে

ইসরায়েলে টিকা দেয়ার কাজ শুরু হয়েছে ১৯শে ডিসেম্বর। সেদেশে প্রতিদিন দেড় লাখ মানুষকে টিকা দেওয়া হচ্ছে। ষাটোর্ধ ব্যক্তি ছাড়াও স্বাস্থ্য-কর্মী এবং যারা ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে টিকা দেওয়ার ব্যাপারে তাদেরকে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে।

মহামারি শুরু হওয়ার পর পরই ইসরায়েল টিকা পাওয়া জন্য ফাইজার-বায়োঅ্যানটেকের সঙ্গে সমঝোতা সেরে ফেলে।

এর পর দেশটি ধাপে ধাপে ফাইজারের টিকার চালান নিশ্চিত করে।

এই টিকাটি মাইনাস ৭০ ডিগ্রি তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করতে হয়।
ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু, যিনি আবারও নির্বাচনে দাঁড়িয়েছেন, তিনি আশা করেছিলেন তার দেশ ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যেই মহামারি থেকে বের হয়ে আসতে পারবে।

বর্তমানে দেশটিতে তৃতীয়বারের মতো লক-ডাউন জারি রয়েছে।

ফ্রান্স কেন পিছিয়ে

ফ্রান্সে টিকা দেওয়া শুরু হয় ২৭শে ডিসেম্বর। বছরের শেষ নাগাদ তারা ১৩৮ জনকে টিকা দিতে সক্ষম হয়। কিন্তু ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ জার্মানিতে এক লাখ ৩০ হাজারেরও বেশি মানুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে।

মানুষকে টিকা দেয়ার পেছনে একটি বড় সমস্যা হিসেবে কাজ করেছে এর কার্যকারিতার বিষয়ে মানুষের নিরাশা।

এ বিষয়ে ১৫টি দেশে একটি জরিপ চালানো হয়। দেখা গেছে ফ্রান্সে মাত্র ৪০% মানুষ জানিয়েছে যে তারা টিকা নিতে আগ্রহী। কিন্তু চীনে এই হার ৮০%, ব্রিটেনে ৭৭% এবং যুক্তরাষ্ট্রে ৬৯%।

কী করছে ভারত?

ভারতে করোনাভাইরাসের টিকা দেবার কর্মসূচির এক দেশব্যাপী মহড়া অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ভারত সরকারের একটি প্যানেল এর মধ্যে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার উদ্ভাবিত টিকাটি অনুমোদন করেছে এবং দেশটি এ বছরের মাঝামাঝি নাগাদ ৩০ কোটি মানুষকে এই টিকা দিতে চাইছে। অক্সফোর্ডের টিকাটি সাধারণ ফ্রিজেই সংরক্ষণ করা যায়।

ভারতের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন বলছেন, টিকা দেবার মহড়ায় হাজার হাজার স্বাস্থ্যকর্মী ও স্বেচ্ছাসেবীকে জড়িত করা হচ্ছে – যার লক্ষ্য হলো দক্ষতা তৈরি করা এবং টিকাদানের সময় যেন কোন সমস্যা না হয় তা নিশ্চিত করা।

ভারতে করোনাভাইরাসে প্রায় দেড় লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে এক কোটিরও বেশি মানুষ। আক্রান্তের সংখ্যার হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের পরেই রয়েছে ভারত। সূত্র: বিবিসি বাংলা

ফেসবুকে লাইক দিন

তারিখ অনুযায়ী খবর

ডিসেম্বর ২০২২
শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
« নভেম্বর  
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১ 
দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।